বৃহস্পতিবার , ১৩ ডিসেম্বর ২০১৮ | ২২শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
  1. আইন ও অপরাধ
  2. আজকের আবহাওয়া পূর্বাভাস
  3. আন্তর্জাতিক
  4. আপনার স্বাস্থ্য
  5. ইতিহাসের এই দিনে
  6. উত্তরাঞ্চলের খবর
  7. উপজেলা পরিষদ নির্বাচন
  8. কৃষি, অর্থ ও বাণিজ্য
  9. খেলাধুলা
  10. চাকরির খবর
  11. দেশ প্রতিদিন
  12. ধর্ম ও জীবন
  13. নারী ও শিশু
  14. প্রতিদিনের কথা
  15. প্রতিদিনের রাশিফল

আওয়ামী লীগ নয়,বিএনপির প্রতিপক্ষ যেন পুলিশ : আলাল

প্রতিবেদক
admin2022
ডিসেম্বর ১৩, ২০১৮ ১০:০৬ অপরাহ্ণ

বিজয় ডেস্ক: আওয়ামী লীগ নয়, আসন্ন নির্বাচনে বিএনপির প্রতিপক্ষ যেন পুলিশ বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির যুগ্ম-মহাসিচব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল। আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে নির্বাচন ভবনে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ মন্তব্য করেন তিনি।

আলাল বলেন, ‘এবারের নির্বাচনে ধানের শীষের প্রতিদ্বন্দ্বিতা যেন আওয়ামী লীগের সঙ্গে নয়, মনে হচ্ছে আমাদের প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী পুলিশ ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নামে যারা আছেন তারা। সরকারি দলের প্রার্থীরা পুলিশ প্রটোকল নিয়ে প্রচার কাজ চালাচ্ছেন। আর বিএনপির প্রার্থীর অনুসারী নেতাকর্মীদের পুলিশ ধরছে, পেটাচ্ছে, গ্রেপ্তার করছে। আক্রমণের পর আক্রমণ, যা খুশি তাই করা হচ্ছে।

এদিন বিকেলে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সেলিমা রহমান ও ভাইস চেয়ারম্যান এ জেড এম জাহিদ হোসেনসহ নির্বাচন কমিশনে চিঠি দিতে আসেন সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল। ইসি ভবনে তাদের ২৫ মিনিট বসিয়ে রাখা হয়। অপেক্ষা করার পর চিঠি না নেওয়ায় ফিরে যান তারা।

এ সময় সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন আলাল। তিনি আরও বলেন, ‘আজকে আমরা বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল তথা ঐক্যফ্রন্টের পক্ষ থেকে এখানে এসেছি। সাবেক মন্ত্রী ও সরকারের সাবেক উচ্চপদস্থ এক কর্মকর্তাসহ এখানে এসেছি। অথচ ২৫ মিনিট দাঁড় করে আমাদের ডেস্ক থেকে নেওয়ার ব্যাপারে নিষেধ করা হলো। আমরা এখানে প্রতিকার চেয়ে এসেছিলাম। আমাদের দেখা করতে দেয়া হয়নি।’

আলাল বলেন, ‘এতেই বোঝা যায়, লেভেল প্লেয়িং ফিল্ডের কী অবস্থা। এর মধ্য দিয়ে আজ এটা স্পষ্ট হলো, আমাদের সঙ্গে কী ধরনের আচরণ করা হচ্ছে। তবে কমিশনের কেউ আমাদের সঙ্গে দেখা না করায় আমরা লিখিত দাবি জমা দিয়েছি।’

প্রচারণা চলাকালে বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক গাজীপুরের প্রার্থী ফজলুল হক মিলনকে গ্রেপ্তারের বিষয়ে জানতে চাইলে আলাল বলেন, ‘তাকে কিছুক্ষণ আগে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এছাড়া উত্তরায় ঐক্যফ্রন্টের পক্ষে একটি নির্বাচনী প্রচারণা সভার মঞ্চ ভেঙে গুঁড়িয়ে দেয়া হয়েছে। নেতাকর্মীদের মারধর করা হয়েছে। ওই অনুষ্ঠানে আ স ম রব ও মাহমুদুর রহমান মান্না যাচ্ছিলেন।’

ঢাকা-১, নরসিংদী-২, ময়মনসিংহ-২, ময়মনসিংহ-৩, ময়মনসিংহ-১১, মাগুরা-১, কুষ্টিয়া-৩, মাগুরা-১, মাগুরা-২, টাঙ্গাইল-৭, ফরিদপুর-২ ঢাকা-২, সিরাজগঞ্জ-৩, সিরাজগঞ্জ-২, পটুয়াখালী-১, মৌলভীবাজার -৩, বি.বাড়িয়া-২ ও ৩, নেত্রকোনা-৩, মানিকগঞ্জ-১ ও ৩, চাঁদপুর-৪, নওগাঁ-২ এবং রাজশাহী-৪ ও ৬ আসনে আওয়ামী লীগ ও তাদের অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মী আমাদের বিএনপি ও ঐক্যফ্রন্টের নেতা কর্মীদের ওপর হামলা করেছে। প্রার্থীদের বাধা দিচ্ছে, নির্বাচনী প্রচারণায় হামলা ও সভা পণ্ড করে দিয়েছে বলেও জানান বিএনপির এই যুগ্ম মহাসচিব।

এ সময় ঢাকা-৯ আসনের প্রার্থী আফরোজা আব্বাসের নির্বাচনী প্রচারণায় হামলার বিষয়টি সাংবাদিকদের তুলে ধরে আলাল বলেন, ‘আমাদের নির্বাচনী সভাগুলো পণ্ড করা হচ্ছে। আর আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী দাঁড়িয়ে দেখছেন।’

অনলাইন নিউজ পোর্টাল বন্ধের বিষয়েও কথা বলেন আলাল। তিনি বলেন, অনেকগুলো অনলাইন নিউজ পোর্টাল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। একবার বন্ধের আদেশ আরেকবার খোলার আদেশ, আবার বন্ধের আদেশ দেয়া হয়েছে। এসব পোর্টালের মধ্যে বিএনপির বিএনপিবাংলাদেশডটকম (bnpbangladesh.com) নামে ওয়েবসাইটও বন্ধ করা হয়েছে।

Related image

সর্বশেষ - ফিচার