শুক্রবার , ৩০ নভেম্বর ২০১৮ | ২৩শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
  1. আইন ও অপরাধ
  2. আজকের আবহাওয়া পূর্বাভাস
  3. আন্তর্জাতিক
  4. আপনার স্বাস্থ্য
  5. ইতিহাসের এই দিনে
  6. উত্তরাঞ্চলের খবর
  7. উপজেলা পরিষদ নির্বাচন
  8. কৃষি, অর্থ ও বাণিজ্য
  9. খেলাধুলা
  10. চাকরির খবর
  11. দেশ প্রতিদিন
  12. ধর্ম ও জীবন
  13. নারী ও শিশু
  14. প্রতিদিনের কথা
  15. প্রতিদিনের রাশিফল

ক্ষমতায় না থাকলেও পালিয়ে যাব না : ওবায়দুল কাদের

প্রতিবেদক
admin2022
নভেম্বর ৩০, ২০১৮ ২:৩৬ অপরাহ্ণ

বিজয় ডেস্ক: আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘আমাদের ভুল-ক্রুটি থাকতে পারে। কিন্তু আমাদের রাজনীতি বাংলাদেশের মাটি ও মানুষের রাজনীতি। আমরা মানুষের মাঝে আছি। তাই ক্ষমতায় না থাকলেও পালিয়ে যাব না। এ দেশেই জন্ম, এদেশেই আমরা মরবো। যে শপথ নিয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু।’

শুক্রবার (৩০ নভেম্বর) সকালে আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক প্রেস ব্রিফ্রিংয়ে তিনি এ মন্তব্য করেন।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ষড়যন্ত্র মামলার প্রসঙ্গ উল্লেখ করে এ সময় তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুকে গ্রেফতার করে কুর্মিটোলা ক্যান্টনমেন্টে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। তখন কোথায় নিয়ে যাচ্ছে কেউ জানতো না। বঙ্গবন্ধু জেলখানা থেকে বাহিরে পা দিয়ে কুঁয়াশা ভেজা সকালে এক খন্ড মাটি কপালে ছুঁয়ে বলেছিলেন, এই দেশেতেই জন্ম আমরা যেন এই দেশেতেই মরি । তিনি আরও বলেন, আমরাও এই মাটির সঙ্গেই আছি। বঙ্গবন্ধুও ছিলেন, তার কন্যা শেখ হাসিনাও আছেন’।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ক্ষমতা আল্লাহর হাতে, ‘জনগণের হাতে। ক্ষমতার দাপট আমরা কোন দিন দেখাই নি। আমাদের ভুল-ক্রটি হতে পারে, এত বড় দল। কিন্তু আমরা অপকর্মকারীকে আনপানিশড যেতে দেই নি।’ এ সময় তিনি নিজ দলের সংসদ সদস্যের কারাগারে থাকার বিষয়টি টানেন। তিনি বলেন, ‘আমরা ভুল হলে সংশোধন করে নেই। ভুল হলে সংশোধনের সৎ সাহস শেখ হাসিনার আছে।’

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নির্বাচনী ইশতেহার মনোনয়নপর্ব শেষে দেওয়া হবে বলে জানান দলের সাধারণ সম্পাদক। তিনি বলেন, মনোনয়ন পর্ব শেষে ইশতেহারের বিষয়ে আমরা পদক্ষেপ নেব। সম্ভবত বঙ্গবন্ধু আন্তজার্তিক সম্মেলন কেন্দ্র কিংবা কৃষিবিদ ইন্সটিটিউটে ইশতেহার প্রকাশ হতে পারে। নির্বাচনী ইশতেহারে ‘দিন বদলের অভিযান, অদম্য বাংলাদেশ’ গ্রামীন উন্নয়নগুলোকে প্রাধান্য দেওয়া হচ্ছে বলে জানান কাদের।

আওয়ামী লীগের মনোনয়ন এখন চূড়ান্ত হয় নি বলেন এ সময় জানান ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, এবার দলের মনোনয়নের ক্ষেত্রে রাজনীতিকরাই বেশী প্রাধান্য দেওয়া হয়েছে। গতবারের চেয়ে এ সংখ্যা আরও বেড়েছে। সাবেক ছাত্র নেতা যারা তৃণমূল থেকে এসেছে তাদের আমরা মনোনয়ন দিয়েছি। সর্বমোট আসন সংখ্যার মধ্যে ১৬ থেকে ১৭ জন ব্যবসায়ী মনোনয়ন পেয়েছেন। এ ছাড়া ৪০ জনের কাছাকাছি মুক্তিযোদ্ধা, আর নতুন মুখ ৫০ এর কোঠা ছুঁতে পারে বলে আমাদের কাছে মনে হচ্ছে। অপর এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিনের আগে নিশ্চিত করে বলা যাবে না, কে বিদ্রোহী প্রার্থী। তবে কেউ দলের সিদ্ধান্তের বাহিরে গিয়ে বিদ্রোহী হলে তাকে আজীবনের জন্য বহিস্কার করা হবে বলেও জানান তিনি।

আসন ভাগাভাগি নিয়ে মহাজোটে ক্ষোভ রয়েছে কিনা এমন এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘‘কিছু ক্ষোভ তো থাকতেই পারে। এত বড় মহাজোট। এখানে তো ক্ষোভ-বিক্ষোভ কিছু হবেই। সেই ক্ষোভ প্রশমিতও আমরা করবো। কিন্তু প্রত্যাহার পর্যন্ত যাদের ধৈয্য থাকবে না তাদের জন্য ব্যবস্থা আছে।’’

মুজিব কোট পরা ঐক্যফ্রন্টের নেতাদের ধানের শীষ প্রতিক নিয়ে নির্বাচন করার প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘‘তারা তো আওয়ামী লীগেই ছিলেন। তাদের হৃদয়ের রক্তক্ষরণ থাকবে। তারা তো শুনে বিষ পান করেছেন। সাম্প্রদায়িক অপশক্তির সঙ্গে হাত মিলিয়েছেন এটা তাদের দীর্ঘদিন তাড়িত করবে।’’ এ সময় আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য এস এম কামাল হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

সর্বশেষ - ফিচার