ঢাকা ০৮:৫১ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ঈদ মোবারক

হাকিমপুর (হিলি) ভূমি অফিসে একই পদে দীর্ঘ বছর

হাকিমপুর উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) এর কার্যালয়ে ৬ বছর ধরে একই স্থানে কর্মরত রয়েছেন ৫ জন। ভূমি অফিসের মিউটেশন কাম সার্টিফিকেট সহকারী ২ জন, নাজির কাম ক্যাশিয়ার ও জারিকারকসহ দীর্ঘদিন চাকরির সুবাধে ডালপালা মেলেছেন তারা!

কোন সরকারি কর্মকর্তা একই কর্মস্থলে তিন বছরের অধিক সময় থাকতে পারবেন না। সরকারের এমন নীতিমালা থাকলেও তা বাস্তবায়ন হচ্ছে না হাকিমপুর উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) এর কর্যালয়ে।

অনুসন্ধানে জানা যায়, হাকিমপুর (ভূমি) অফিসে ২০১৮ সালে হতে মিউটেশন কাম সার্টিফিকেট সহকারী পদে সোলায়মান আলী ও মোসাদ্দেক হোসেন কর্মরত আছেন। মোফাজ্জল হোসেন (জারিকারক), সেকেন্দার আলী (জারিকারক), শহিদুল ইসলাম শাহীন (চেইনম্যান) হিসাবে কর্মরত রয়েছেন।

হাকিমপুর উপজেলা ভূমি অফিসে উল্লেখিত কর্মরত ব্যক্তিগণ সকল প্রকার নিয়ম-বিধি ভঙ্গ করে নিজস্ব নিয়মে ইচ্ছামত দাপ্তরিক কার্যক্রম পরিচালিত করছেন। দীর্ঘদিন একই উপজেলায় থাকায় অনেকেই আঙুল ফুলে কলাগাছে পরিণত হয়েছেন। এতে করে সাধারণ জনগণের ভোগান্তির শেষ নেই।

হাকিমপুর উপজেলা ভূমি অফিসরে নাজির-কাম-ক্যাশিয়ার কর্মকর্তা মোঃ সোলায়মান আলীসহ অনেক কর্মরত ব্যক্তি একই স্থানে দীর্ঘদিন থাকার বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, একই স্থানে দীর্ঘদিন চাকরির সুবাধে কিছু অধিপত্য তৈরী হওয়াটাই স্বাভাবিক! তবে তারা দাবি করে বলেন, উদ্ধর্তন কর্তৃপক্ষ রাখলে আমাদের কিছু করার নেই।

হাকিমপুর উপজেলার চন্ডিপুর এলাকার মোসাদ্দেক হোসেন শিক্ষক অভিযোগ করে বলেন, কাগজপত্র সঠিক থাকার পরেও মোটা অংকের চাঁদা দাবি করেন উপজেলা ভূমি নাজির ক্যাম ক্যাশিয়ার সোলায়মান আলী, আমি অতিরিক্ত টাকা (ঘুষ) দিতে না পারায় আমার খারিজটি হয় নাই।

এ বিয়ে হাকিমপুর উপজেলা কমিশনার (ভূমি) লায়লা ইয়াসমিন বলেন, নীতিমালা অনুযায়ী একই স্টেশনে ৩ বছরের অধিক থাকার নিয়ম নেই। এরপরও ভূমি কর্মকর্তা ও কর্মচারিদের বদলির বিষয়টি জেলা প্রশাসকে হাতে বিষয়টি জেলা প্রশাসক স্যারকে অবগত করা আছে। এ বিষয়ে যে কোন সিদ্ধান্ত ওনার বিষয়।

আরও পড়ুন>>আজ থেকে খুঁজতে হবে লাইলাতুল কদর

নিউজবিজয়২৪/এফএইচএন

👉 নিউজবিজয় ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন ✅

আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার দিন।

NewsBijoy24.Com

নিউজবিজয়২৪.কম একটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল। বস্তুনিষ্ঠ ও তথ্যভিত্তিক সংবাদ প্রকাশের প্রতিশ্রুতি নিয়ে ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাসে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। উৎসর্গ করলাম আমার বাবার নামে, যাঁর স্নেহ-সান্নিধ্যের পরশ পরিবারের সুখ-দু:খ,হাসি-কান্না,ব্যথা-বেদনার মাঝেও আপার শান্তিতে পরিবার তথা সমাজে মাথা উচুঁ করে নিজের অস্তিত্বকে মেলে ধরতে পেরেছি।

দিঘলিয়া উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে যুবলীগ নেতা সৈয়দ জামিল মোর্শেদ মাসুমের বিকল্প নেই

prayer-image
  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৪:৩০ পূর্বাহ্ণ
  • ১২:০৫ অপরাহ্ণ
  • ৪:৩২ অপরাহ্ণ
  • ৬:২৪ অপরাহ্ণ
  • ৭:৩৯ অপরাহ্ণ
  • ৫:৪৩ পূর্বাহ্ণ


হাকিমপুর (হিলি) ভূমি অফিসে একই পদে দীর্ঘ বছর

প্রকাশিত সময় :- ১০:৩৩:১০ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩১ মার্চ ২০২৪

হাকিমপুর উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) এর কার্যালয়ে ৬ বছর ধরে একই স্থানে কর্মরত রয়েছেন ৫ জন। ভূমি অফিসের মিউটেশন কাম সার্টিফিকেট সহকারী ২ জন, নাজির কাম ক্যাশিয়ার ও জারিকারকসহ দীর্ঘদিন চাকরির সুবাধে ডালপালা মেলেছেন তারা!

কোন সরকারি কর্মকর্তা একই কর্মস্থলে তিন বছরের অধিক সময় থাকতে পারবেন না। সরকারের এমন নীতিমালা থাকলেও তা বাস্তবায়ন হচ্ছে না হাকিমপুর উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) এর কর্যালয়ে।

অনুসন্ধানে জানা যায়, হাকিমপুর (ভূমি) অফিসে ২০১৮ সালে হতে মিউটেশন কাম সার্টিফিকেট সহকারী পদে সোলায়মান আলী ও মোসাদ্দেক হোসেন কর্মরত আছেন। মোফাজ্জল হোসেন (জারিকারক), সেকেন্দার আলী (জারিকারক), শহিদুল ইসলাম শাহীন (চেইনম্যান) হিসাবে কর্মরত রয়েছেন।

হাকিমপুর উপজেলা ভূমি অফিসে উল্লেখিত কর্মরত ব্যক্তিগণ সকল প্রকার নিয়ম-বিধি ভঙ্গ করে নিজস্ব নিয়মে ইচ্ছামত দাপ্তরিক কার্যক্রম পরিচালিত করছেন। দীর্ঘদিন একই উপজেলায় থাকায় অনেকেই আঙুল ফুলে কলাগাছে পরিণত হয়েছেন। এতে করে সাধারণ জনগণের ভোগান্তির শেষ নেই।

হাকিমপুর উপজেলা ভূমি অফিসরে নাজির-কাম-ক্যাশিয়ার কর্মকর্তা মোঃ সোলায়মান আলীসহ অনেক কর্মরত ব্যক্তি একই স্থানে দীর্ঘদিন থাকার বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, একই স্থানে দীর্ঘদিন চাকরির সুবাধে কিছু অধিপত্য তৈরী হওয়াটাই স্বাভাবিক! তবে তারা দাবি করে বলেন, উদ্ধর্তন কর্তৃপক্ষ রাখলে আমাদের কিছু করার নেই।

হাকিমপুর উপজেলার চন্ডিপুর এলাকার মোসাদ্দেক হোসেন শিক্ষক অভিযোগ করে বলেন, কাগজপত্র সঠিক থাকার পরেও মোটা অংকের চাঁদা দাবি করেন উপজেলা ভূমি নাজির ক্যাম ক্যাশিয়ার সোলায়মান আলী, আমি অতিরিক্ত টাকা (ঘুষ) দিতে না পারায় আমার খারিজটি হয় নাই।

এ বিয়ে হাকিমপুর উপজেলা কমিশনার (ভূমি) লায়লা ইয়াসমিন বলেন, নীতিমালা অনুযায়ী একই স্টেশনে ৩ বছরের অধিক থাকার নিয়ম নেই। এরপরও ভূমি কর্মকর্তা ও কর্মচারিদের বদলির বিষয়টি জেলা প্রশাসকে হাতে বিষয়টি জেলা প্রশাসক স্যারকে অবগত করা আছে। এ বিষয়ে যে কোন সিদ্ধান্ত ওনার বিষয়।

আরও পড়ুন>>আজ থেকে খুঁজতে হবে লাইলাতুল কদর

নিউজবিজয়২৪/এফএইচএন