ঢাকা ০৫:৫৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঈদ মোবারক

লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলায়

শিশু রোমান নিহতের ঘটনায় এক কিশোর গ্রেফতার

লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলায় শিশু রোমান (৬) নিহতের ঘটনায় আশিকুর রহমান (১৪) নামের এক কিশোরকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
আশিকুর একই উপজেলার ভাদাই খোলাহাটি গ্রামের মুছা মিয়ার ছেলে।
আর নিহত শিশু রোমান মিয়া ওই এলাকার আমিনুর হকের ছেলে।
মঙ্গলবার (২ এপ্রিল) সকালে তাকে নিজ বাড়ী থেকে গ্রেফতার করেন আদিতমারী থানা পুলিশ। এরপর আদালতে ফৌজদারি কার্যবিধি ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেছেন।
মঙ্গলবার (২ এপ্রিল) বিকালে লালমনিরহাট পুলিশ সুপার কনফারেন্স রুমে এক প্রেসব্রিফিং পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, (২৯ মার্চ) শুক্রবার শিশু রোমান নিখোঁজের পরদিন শনিবার উপজেলার ভাদাই সেতু বাজার এলাকার একটি তামাক খেত থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করেন পুলিশ। এ ঘটনায় শিশু রোমানের বাবা আমিনুর ইসলাম বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।
প্রেস কনফারেন্সে পুলিশ সুপার আরো জানান,এলাকায় একটি ছাগল চুরি করেন কিশোর আশিকুর। আর এ চুরির ঘটনাটি দেখে ফেলেন শিশু রোমান মিয়া। এনিয়ে সালিশি বৈঠকে আশিকুরের ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এরপর থেকে আশিকুরকে ছাগলচোরা ছাগলচোরা বলত শিশু রোমান। এরই প্রেক্ষিতে ক্ষুব্ধ হয়ে রোমানকে হত্যার পরিকল্পনা করা হয় বলে জানানো হয়।
পুলিশ সুপার বলেন, হত্যার পরিকল্পনা অনুযায়ী ওই দিন বিকালে শিশু রোমানকে ডেকে নিয়ে তার সাথে সখ্যতা তৈরি করে খেলাধূলা করতে আশিকুর। এরপর সন্ধ্যার পরে জনৈক মজমুল হকের তামাক খেতে নিয়ে গলাচিপে শ্বাসরোধ করে এবং ঘাড় মটকে হত্যা করে। হত্যার পর তামাক খেতেট দুই সারির মাঝে ড্রেনের মধ্যে কিছু তামাক পাতা এবং মাটি দিয়ে চাপা দিয়ে রাখা হয়। পরে
গত শনিবার বিকেলে উপজেলার ভাদাই ইউনিয়নের খোলাহাটি সেতুবাজার এলাকা থেকে মরদেহ উদ্ধার করেন পুলিশ।
পুলিশ সুপার আরো জানান, গ্রেফতার কিশোর আশিকুরকে যশোর কিশোর শোধনাগারে পাঠানোর জন্য প্রক্রিয়া চলছে।
এসময় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আতিকুল রহমান,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফজলুল হক,ওসি মাহমুদ উন নবী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

নিউজবিজয়২৪/এফএইচএন

👉 নিউজবিজয় ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন ✅

আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার দিন।

NewsBijoy24.Com

নিউজবিজয়২৪.কম একটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল। বস্তুনিষ্ঠ ও তথ্যভিত্তিক সংবাদ প্রকাশের প্রতিশ্রুতি নিয়ে ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাসে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। উৎসর্গ করলাম আমার বাবার নামে, যাঁর স্নেহ-সান্নিধ্যের পরশ পরিবারের সুখ-দু:খ,হাসি-কান্না,ব্যথা-বেদনার মাঝেও আপার শান্তিতে পরিবার তথা সমাজে মাথা উচুঁ করে নিজের অস্তিত্বকে মেলে ধরতে পেরেছি।

গুলিবিদ্ধ ইউপি সদস্য নান্নুকে মামলায় পলাতক দেখালো বিজিবি

লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলায়

শিশু রোমান নিহতের ঘটনায় এক কিশোর গ্রেফতার

প্রকাশিত সময় :- ০৭:১১:৩৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ এপ্রিল ২০২৪

লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলায় শিশু রোমান (৬) নিহতের ঘটনায় আশিকুর রহমান (১৪) নামের এক কিশোরকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
আশিকুর একই উপজেলার ভাদাই খোলাহাটি গ্রামের মুছা মিয়ার ছেলে।
আর নিহত শিশু রোমান মিয়া ওই এলাকার আমিনুর হকের ছেলে।
মঙ্গলবার (২ এপ্রিল) সকালে তাকে নিজ বাড়ী থেকে গ্রেফতার করেন আদিতমারী থানা পুলিশ। এরপর আদালতে ফৌজদারি কার্যবিধি ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেছেন।
মঙ্গলবার (২ এপ্রিল) বিকালে লালমনিরহাট পুলিশ সুপার কনফারেন্স রুমে এক প্রেসব্রিফিং পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, (২৯ মার্চ) শুক্রবার শিশু রোমান নিখোঁজের পরদিন শনিবার উপজেলার ভাদাই সেতু বাজার এলাকার একটি তামাক খেত থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করেন পুলিশ। এ ঘটনায় শিশু রোমানের বাবা আমিনুর ইসলাম বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।
প্রেস কনফারেন্সে পুলিশ সুপার আরো জানান,এলাকায় একটি ছাগল চুরি করেন কিশোর আশিকুর। আর এ চুরির ঘটনাটি দেখে ফেলেন শিশু রোমান মিয়া। এনিয়ে সালিশি বৈঠকে আশিকুরের ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এরপর থেকে আশিকুরকে ছাগলচোরা ছাগলচোরা বলত শিশু রোমান। এরই প্রেক্ষিতে ক্ষুব্ধ হয়ে রোমানকে হত্যার পরিকল্পনা করা হয় বলে জানানো হয়।
পুলিশ সুপার বলেন, হত্যার পরিকল্পনা অনুযায়ী ওই দিন বিকালে শিশু রোমানকে ডেকে নিয়ে তার সাথে সখ্যতা তৈরি করে খেলাধূলা করতে আশিকুর। এরপর সন্ধ্যার পরে জনৈক মজমুল হকের তামাক খেতে নিয়ে গলাচিপে শ্বাসরোধ করে এবং ঘাড় মটকে হত্যা করে। হত্যার পর তামাক খেতেট দুই সারির মাঝে ড্রেনের মধ্যে কিছু তামাক পাতা এবং মাটি দিয়ে চাপা দিয়ে রাখা হয়। পরে
গত শনিবার বিকেলে উপজেলার ভাদাই ইউনিয়নের খোলাহাটি সেতুবাজার এলাকা থেকে মরদেহ উদ্ধার করেন পুলিশ।
পুলিশ সুপার আরো জানান, গ্রেফতার কিশোর আশিকুরকে যশোর কিশোর শোধনাগারে পাঠানোর জন্য প্রক্রিয়া চলছে।
এসময় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আতিকুল রহমান,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফজলুল হক,ওসি মাহমুদ উন নবী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

নিউজবিজয়২৪/এফএইচএন