ঢাকা ১১:৩৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঈদ মোবারক

রমজানে স্কুল খোলা রাখার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে রিট

  • নিউজ বিজয় ডেস্ক :-
  • প্রকাশিত সময় :- ০৯:৪৯:১৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • ৩০৬ পড়া হয়েছে। নিউজবিজয় ২৪.কম-১৫ ডিসেম্বরে ৯ বছরে পর্দাপন

আসন্ন পবিত্র রমজান মাসে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয় খোলা রাখার সিদ্ধান্তের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হয়েছে। জনস্বার্থে আইনজীবী আইনজীবী মো. ইলিয়াছ আলী মন্ডল রোববার (২৫ ফেব্রুয়ারি) হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এই রিট দায়ের করেন।

রিটে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব, শিক্ষা সচিব, উপসচিব প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব, উপসচিব শিক্ষা সচিব, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (ডিজি), শিশু কল্যাণ ট্রাস্টের পরিচালককে বিবাদী করা হয়েছে। পরে আইনজীবী মো. ইলিয়াছ আলী মন্ডল বলেন, বাংলাদেশ রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম সংবিধানে উল্লেখ করা আছে।
প্রতি বছর পবিত্র রমজান মাসে শিশু-কিশোরসহ সবার শরীর স্বাস্থ্যের বিষয় বিবেচনায় নিয়ে রমজান মাস শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা হয়। তবে চলতি বছরের রমজান মাসে মাদরাসা বন্ধ থাকলেও প্রাথমিক বিদ্যালয় রমজানের প্রথম ১০ দিন এবং মাধ্যমিক বিদ্যালয় রমজানের প্রথম ১৫ দিন খোলা রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। যা সংবিধানের ২৬, ২৭, ২৮, ৩১, ৩২ অনুচ্ছেদের সঙ্গে সাংঘর্ষিক। এসব কারণে আইনি নোটিশ পাঠিয়েছিলাম। কোন সাড়া না পেয়ে আজ রিট দায়ের করেছি।

চলতি সপ্তাহে বিচারপতি নাঈমা হায়দারের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চে শুনানি হতে পারে বলে জানান এই আইনজীবী। রিটে রমজান মাসের প্রথম ১০ (দশ) দিন প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং রমজান মাসের প্রথম ১৫ (পনের) দিন মাধ্যমিক বিদ্যালয় খোলা রাখার সরকারের সিদ্ধান্ত কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, এই মর্মে রুল জারির আর্জি জানানো হয়েছে। পাশাপাশি এই রুল নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত রমজান মাসে স্কুল বন্ধ রাখার নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে।

এর আগে রমজান মাসে স্কুল খোলা রাখার সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে গত ১৮ ফেব্রুয়ারি শিক্ষা সচিব ও প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব বরাবরে আইনি নোটিশ পাঠানো হয়।

সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মো. ইলিয়াছ আলী মন্ডল রেজিস্ট্রি ডাকযোগে এই নোটিশ পাঠান। নোটিশে বলা হয়, বাংলাদেশের ৯৮ শতাংশ নাগরিক মুসলমান, সংবিধানের ২ এর ক অনুযায়ী ‘প্রজাতন্ত্রের রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম’ এবং ৩১ অনুচ্ছেদে আইন ছাড়া কিছুই করা যাবে না, অনুচ্ছেদ ১৫২(১) আইন অর্থ ‘বাংলাদেশে আইনের ক্ষমতা সম্পন্ন যে কোন প্রথা ও রীতি’ বাংলাদেশ স্বাধীনতার পর থেকে রমজান মাসে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকে এটিই আইন প্রথা ও নীতি এবং ওইভাবে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান মাহে রমজান মাসে বন্ধ থাকে। তাই প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয় রমজান মাসে খোলা রাখার সরকারের তর্কিত সিদ্ধান্ত অসাংবিধানিক।

নোটিশে আরও বলা হয়, শিক্ষা মন্ত্রণালয় কর্তৃক গত বছরের ১১ ডিসেম্বর দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আসন্ন রমজান মাসে বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয় কিন্তু সাম্প্রতিক প্রাথমিক ও মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রমজান মাসে খোলা রাখার সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত বৈষম্যমূলক ও সাংঘর্ষিক। যদিও মাদ্রাসা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রমজান মাসে বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত বহাল রাখা হয়েছে।

এছাড়াও রমজান মাসে শিক্ষকরা রোজা রেখে ক্লাসে লেখাপড়া শেখানো বিষয় মনোযোগী হয় না। এ ছাড়া অভিভাবকগণ রোজা রেখে সন্তানের স্কুলে যাতায়াত করা তাদের জন্য কষ্টকর হবে। স্কুল খোলা রেখে বাচ্ছাদের ওপর এতো শারীরিক ও মানসিক চাপ, অত্যাচার অমানবিক।

বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর থেকে রমজান মাসে স্কুল, কলেজ বন্ধ থাকতো। সরকারের বর্তমান সিদ্ধান্ত সংবিধানের ২৬,২৭,২৮,৩১,৩২ অনুচ্ছেদে সাংঘর্ষিক, তাই ওই সিদ্ধান্ত বাতিল ও পবিত্র মাহে রমজানে স্কুল বন্ধ রাখার জন্য এই অনুরোধ করছি।

পবিত্র মাহে রমজানে প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ অন্যান্য স্কুল প্রতিষ্ঠান খোলা রাখার সরকারের সিদ্ধান্ত অবৈধ ঘোষণা এবং পবিত্র মাহে রমজান মাসে বাংলাদেশের সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার অনুরোধ করছি। এর ব্যর্থতায় প্রয়োজনীয় নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হবে বলে নোটিশে উল্লেখ করা হয়।

নিউজবিজয়২৪/এফএইচএন

👉 নিউজবিজয় ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন ✅

আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার দিন।

NewsBijoy24.Com

নিউজবিজয়২৪.কম একটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল। বস্তুনিষ্ঠ ও তথ্যভিত্তিক সংবাদ প্রকাশের প্রতিশ্রুতি নিয়ে ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাসে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। উৎসর্গ করলাম আমার বাবার নামে, যাঁর স্নেহ-সান্নিধ্যের পরশ পরিবারের সুখ-দু:খ,হাসি-কান্না,ব্যথা-বেদনার মাঝেও আপার শান্তিতে পরিবার তথা সমাজে মাথা উচুঁ করে নিজের অস্তিত্বকে মেলে ধরতে পেরেছি।

নাটোরে পূর্ব শত্রুতার জেরে যুবককে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ!

রমজানে স্কুল খোলা রাখার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে রিট

প্রকাশিত সময় :- ০৯:৪৯:১৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

আসন্ন পবিত্র রমজান মাসে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয় খোলা রাখার সিদ্ধান্তের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হয়েছে। জনস্বার্থে আইনজীবী আইনজীবী মো. ইলিয়াছ আলী মন্ডল রোববার (২৫ ফেব্রুয়ারি) হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এই রিট দায়ের করেন।

রিটে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব, শিক্ষা সচিব, উপসচিব প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব, উপসচিব শিক্ষা সচিব, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (ডিজি), শিশু কল্যাণ ট্রাস্টের পরিচালককে বিবাদী করা হয়েছে। পরে আইনজীবী মো. ইলিয়াছ আলী মন্ডল বলেন, বাংলাদেশ রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম সংবিধানে উল্লেখ করা আছে।
প্রতি বছর পবিত্র রমজান মাসে শিশু-কিশোরসহ সবার শরীর স্বাস্থ্যের বিষয় বিবেচনায় নিয়ে রমজান মাস শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা হয়। তবে চলতি বছরের রমজান মাসে মাদরাসা বন্ধ থাকলেও প্রাথমিক বিদ্যালয় রমজানের প্রথম ১০ দিন এবং মাধ্যমিক বিদ্যালয় রমজানের প্রথম ১৫ দিন খোলা রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। যা সংবিধানের ২৬, ২৭, ২৮, ৩১, ৩২ অনুচ্ছেদের সঙ্গে সাংঘর্ষিক। এসব কারণে আইনি নোটিশ পাঠিয়েছিলাম। কোন সাড়া না পেয়ে আজ রিট দায়ের করেছি।

চলতি সপ্তাহে বিচারপতি নাঈমা হায়দারের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চে শুনানি হতে পারে বলে জানান এই আইনজীবী। রিটে রমজান মাসের প্রথম ১০ (দশ) দিন প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং রমজান মাসের প্রথম ১৫ (পনের) দিন মাধ্যমিক বিদ্যালয় খোলা রাখার সরকারের সিদ্ধান্ত কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, এই মর্মে রুল জারির আর্জি জানানো হয়েছে। পাশাপাশি এই রুল নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত রমজান মাসে স্কুল বন্ধ রাখার নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে।

এর আগে রমজান মাসে স্কুল খোলা রাখার সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে গত ১৮ ফেব্রুয়ারি শিক্ষা সচিব ও প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব বরাবরে আইনি নোটিশ পাঠানো হয়।

সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মো. ইলিয়াছ আলী মন্ডল রেজিস্ট্রি ডাকযোগে এই নোটিশ পাঠান। নোটিশে বলা হয়, বাংলাদেশের ৯৮ শতাংশ নাগরিক মুসলমান, সংবিধানের ২ এর ক অনুযায়ী ‘প্রজাতন্ত্রের রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম’ এবং ৩১ অনুচ্ছেদে আইন ছাড়া কিছুই করা যাবে না, অনুচ্ছেদ ১৫২(১) আইন অর্থ ‘বাংলাদেশে আইনের ক্ষমতা সম্পন্ন যে কোন প্রথা ও রীতি’ বাংলাদেশ স্বাধীনতার পর থেকে রমজান মাসে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকে এটিই আইন প্রথা ও নীতি এবং ওইভাবে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান মাহে রমজান মাসে বন্ধ থাকে। তাই প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয় রমজান মাসে খোলা রাখার সরকারের তর্কিত সিদ্ধান্ত অসাংবিধানিক।

নোটিশে আরও বলা হয়, শিক্ষা মন্ত্রণালয় কর্তৃক গত বছরের ১১ ডিসেম্বর দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আসন্ন রমজান মাসে বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয় কিন্তু সাম্প্রতিক প্রাথমিক ও মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রমজান মাসে খোলা রাখার সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত বৈষম্যমূলক ও সাংঘর্ষিক। যদিও মাদ্রাসা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রমজান মাসে বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত বহাল রাখা হয়েছে।

এছাড়াও রমজান মাসে শিক্ষকরা রোজা রেখে ক্লাসে লেখাপড়া শেখানো বিষয় মনোযোগী হয় না। এ ছাড়া অভিভাবকগণ রোজা রেখে সন্তানের স্কুলে যাতায়াত করা তাদের জন্য কষ্টকর হবে। স্কুল খোলা রেখে বাচ্ছাদের ওপর এতো শারীরিক ও মানসিক চাপ, অত্যাচার অমানবিক।

বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর থেকে রমজান মাসে স্কুল, কলেজ বন্ধ থাকতো। সরকারের বর্তমান সিদ্ধান্ত সংবিধানের ২৬,২৭,২৮,৩১,৩২ অনুচ্ছেদে সাংঘর্ষিক, তাই ওই সিদ্ধান্ত বাতিল ও পবিত্র মাহে রমজানে স্কুল বন্ধ রাখার জন্য এই অনুরোধ করছি।

পবিত্র মাহে রমজানে প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ অন্যান্য স্কুল প্রতিষ্ঠান খোলা রাখার সরকারের সিদ্ধান্ত অবৈধ ঘোষণা এবং পবিত্র মাহে রমজান মাসে বাংলাদেশের সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার অনুরোধ করছি। এর ব্যর্থতায় প্রয়োজনীয় নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হবে বলে নোটিশে উল্লেখ করা হয়।

নিউজবিজয়২৪/এফএইচএন