ঢাকা ১২:৩৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঈদ মুবারক

মা দিবসে মায়ের জন্য উপহার

মা....

মায়ের প্রতি অকৃত্রিম ভালোবাসা ও সম্মান জানাতে প্রতিবছর মে মাসে পালিত হয় বিশ্ব মা দিবস। প্রাচীন গ্রিসে বিশ্ব মা দিবস পালন করা হলেও আধুনিককালে এর প্রবর্তন করেন এক মার্কিন নারী। ১৯০৫ সালে মা দিবসের সূত্রপাত ঘটে। ১৯১৪ সালের ৮ মে মার্কিন কংগ্রেস মে মাসের দ্বিতীয় রোববারকে ‘মা’ দিবস হিসেবে ঘোষণা করে। এভাবেই শুরু হয় মা দিবসের যাত্রা। এরই ধারাবাহিকতায় আমেরিকার পাশাপাশি মা দিবস এখন বাংলাদেশসহ অস্ট্রেলিয়া, ব্রাজিল, কানাডা, চীন, রাশিয়া ও জার্মানসহ শতাধিক দেশে মর্যাদার সঙ্গে পালিত হচ্ছে।

বিশ্বব্যাপী নানা জাকজমক আয়োজনও অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে মায়ের প্রতি ভালোবাসা প্রদর্শনে এই দিবস পালন করা হয়। যদিও অনেকে এটা মানতে নারাজ যে মায়ের জন্য আলাদা করে দিবস কেন থাকবে। অন্যদিকে অনেকে স্বতঃস্ফূর্ততার সাথে দিনটি পালন করে।

এবার আসি মূল প্রসঙ্গে। মা দিবসে মাকে কী দেওয়া যায়? মা তো সন্তানের ভালোবাসা ছাড়া কিছু চান না। কিন্তু তবুও সন্তান মাকে নানা উপহার দিয়ে ভালোবাসা প্রদর্শন করতে চায়। চলুন তবে জেনে নেওয়া যাক বিশেষ এই দিনে মায়ের উপহার কেমন হবে,

আপনার মা যদি ফুল পছন্দ করেন তাহলে আজকের এই বিশেষ দিন তার পছন্দের ফুল উপহার দিতে পারেন।

মা যদি বই পড়তে পছন্দ করেন তাকে বই উপহার দিতে পারেন।

যদি আপনার মা গার্ডেনিং করতে ভালোবাসেন, তাহলে তাকে কয়েক রকমের গাছ এবং বাগান পরিচর্যার বিভিন্ন যন্ত্রপাতিও উপহার দিকে পারেন।

রান্নার বিভিন্ন গ্যাজেট এখন সহজলভ্য। রাইস কুকার, কারি কুকার, স্মুদি মেকার, রুটি মেকার, ইলেকট্রনিক কেটলি কিংবা স্লাইসার ইত্যাদি মাকে উপহার দিতে পারেন। কারণ এসব গ্যাজেট রান্নাঘরের কাজে খুবই উপকার করে।

মা যদি মিষ্টি খেতে ভালোবাসেন, তাহলে তাকে উপহার দেওয়া খুবই সহজ। দারুণ কোনো চকলেট কিংবা একটি সুন্দর বাক্সে বাহারি মিষ্টি সাজিয়ে মাকে উপহার দিন। মিষ্টির প্যাকেট কিংবা চকলেট ইত্যাদি হাতে পেলে অবশ্যই মা অনেক খুশি হবেন।

এই বিশেষ দিনে মাকে চমকে দিতে হাতে তৈরি কার্ডও উপহার দিতে পারে। সেখানে মায়ের প্রতি ভালোবাসার কথা মনের মাধুরি দিয়ে লিখুন।

মা সাজগোজ পছন্দ করলে, তাহলে তাকে দামি ব্র্যান্ডের প্রসাধনী উপহার দিন। আবার পারফিউমও দিতে পারেন।

আপনিও চাইলে মায়ের জন্য গলার হার, নাকফুল, চুড়ি কিংবা কানের দুল কিনে উপহার দিতে পারেন।

যেহেতু মায়ের বেশিরভাগ সময় ঘরেই কাটানা, তাই মাকে সুগন্ধি ক্যান্ডেল উপহার দিতে পারেন। সন্ধ্যায় একাকি সময় কাটানোর সময় এই মোমবাতির আলো ও সুগন্ধ মায়ের মন মুহূর্তেই ভালো করে দেবে।

মায়ের জন্য পোশাকও কিনতে পারেন। শাড়িকিংবা কামিজ কিনতে পারেন মায়ের পছন্দ অনুযায়ী।

মোদ্দা কথা, মাকে যাই উপহার দিন না কেন, আজকের দিনটিতে মায়ের কাছে থাকুন, পাশে থাকুন, তাকে জড়িয়ে ধরুন, আদর করুন, তার প্রতি আপনার অনুভূতির কথা আলাদা করে ব্যক্ত করুন। ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশ বন্ধনকে শক্তিশালী ও দৃঢ় করে। মধুর হয়ে ওঠে সম্পর্ক, পায় স্থায়িত্ব।

👉 নিউজবিজয় ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন ✅

আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার দিন।

NewsBijoy24.Com

নিউজবিজয়২৪.কম একটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল। বস্তুনিষ্ঠ ও তথ্যভিত্তিক সংবাদ প্রকাশের প্রতিশ্রুতি নিয়ে ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাসে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। উৎসর্গ করলাম আমার বাবার নামে, যাঁর স্নেহ-সান্নিধ্যের পরশ পরিবারের সুখ-দু:খ,হাসি-কান্না,ব্যথা-বেদনার মাঝেও আপার শান্তিতে পরিবার তথা সমাজে মাথা উচুঁ করে নিজের অস্তিত্বকে মেলে ধরতে পেরেছি।

মা দিবসে মায়ের জন্য উপহার

প্রকাশিত সময় :- ১০:০১:৪০ অপরাহ্ন, রবিবার, ৮ মে ২০২২

মায়ের প্রতি অকৃত্রিম ভালোবাসা ও সম্মান জানাতে প্রতিবছর মে মাসে পালিত হয় বিশ্ব মা দিবস। প্রাচীন গ্রিসে বিশ্ব মা দিবস পালন করা হলেও আধুনিককালে এর প্রবর্তন করেন এক মার্কিন নারী। ১৯০৫ সালে মা দিবসের সূত্রপাত ঘটে। ১৯১৪ সালের ৮ মে মার্কিন কংগ্রেস মে মাসের দ্বিতীয় রোববারকে ‘মা’ দিবস হিসেবে ঘোষণা করে। এভাবেই শুরু হয় মা দিবসের যাত্রা। এরই ধারাবাহিকতায় আমেরিকার পাশাপাশি মা দিবস এখন বাংলাদেশসহ অস্ট্রেলিয়া, ব্রাজিল, কানাডা, চীন, রাশিয়া ও জার্মানসহ শতাধিক দেশে মর্যাদার সঙ্গে পালিত হচ্ছে।

বিশ্বব্যাপী নানা জাকজমক আয়োজনও অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে মায়ের প্রতি ভালোবাসা প্রদর্শনে এই দিবস পালন করা হয়। যদিও অনেকে এটা মানতে নারাজ যে মায়ের জন্য আলাদা করে দিবস কেন থাকবে। অন্যদিকে অনেকে স্বতঃস্ফূর্ততার সাথে দিনটি পালন করে।

এবার আসি মূল প্রসঙ্গে। মা দিবসে মাকে কী দেওয়া যায়? মা তো সন্তানের ভালোবাসা ছাড়া কিছু চান না। কিন্তু তবুও সন্তান মাকে নানা উপহার দিয়ে ভালোবাসা প্রদর্শন করতে চায়। চলুন তবে জেনে নেওয়া যাক বিশেষ এই দিনে মায়ের উপহার কেমন হবে,

আপনার মা যদি ফুল পছন্দ করেন তাহলে আজকের এই বিশেষ দিন তার পছন্দের ফুল উপহার দিতে পারেন।

মা যদি বই পড়তে পছন্দ করেন তাকে বই উপহার দিতে পারেন।

যদি আপনার মা গার্ডেনিং করতে ভালোবাসেন, তাহলে তাকে কয়েক রকমের গাছ এবং বাগান পরিচর্যার বিভিন্ন যন্ত্রপাতিও উপহার দিকে পারেন।

রান্নার বিভিন্ন গ্যাজেট এখন সহজলভ্য। রাইস কুকার, কারি কুকার, স্মুদি মেকার, রুটি মেকার, ইলেকট্রনিক কেটলি কিংবা স্লাইসার ইত্যাদি মাকে উপহার দিতে পারেন। কারণ এসব গ্যাজেট রান্নাঘরের কাজে খুবই উপকার করে।

মা যদি মিষ্টি খেতে ভালোবাসেন, তাহলে তাকে উপহার দেওয়া খুবই সহজ। দারুণ কোনো চকলেট কিংবা একটি সুন্দর বাক্সে বাহারি মিষ্টি সাজিয়ে মাকে উপহার দিন। মিষ্টির প্যাকেট কিংবা চকলেট ইত্যাদি হাতে পেলে অবশ্যই মা অনেক খুশি হবেন।

এই বিশেষ দিনে মাকে চমকে দিতে হাতে তৈরি কার্ডও উপহার দিতে পারে। সেখানে মায়ের প্রতি ভালোবাসার কথা মনের মাধুরি দিয়ে লিখুন।

মা সাজগোজ পছন্দ করলে, তাহলে তাকে দামি ব্র্যান্ডের প্রসাধনী উপহার দিন। আবার পারফিউমও দিতে পারেন।

আপনিও চাইলে মায়ের জন্য গলার হার, নাকফুল, চুড়ি কিংবা কানের দুল কিনে উপহার দিতে পারেন।

যেহেতু মায়ের বেশিরভাগ সময় ঘরেই কাটানা, তাই মাকে সুগন্ধি ক্যান্ডেল উপহার দিতে পারেন। সন্ধ্যায় একাকি সময় কাটানোর সময় এই মোমবাতির আলো ও সুগন্ধ মায়ের মন মুহূর্তেই ভালো করে দেবে।

মায়ের জন্য পোশাকও কিনতে পারেন। শাড়িকিংবা কামিজ কিনতে পারেন মায়ের পছন্দ অনুযায়ী।

মোদ্দা কথা, মাকে যাই উপহার দিন না কেন, আজকের দিনটিতে মায়ের কাছে থাকুন, পাশে থাকুন, তাকে জড়িয়ে ধরুন, আদর করুন, তার প্রতি আপনার অনুভূতির কথা আলাদা করে ব্যক্ত করুন। ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশ বন্ধনকে শক্তিশালী ও দৃঢ় করে। মধুর হয়ে ওঠে সম্পর্ক, পায় স্থায়িত্ব।