ঢাকা ১২:০৩ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিশ্ব পরিবেশ দিবস

মরক্কোয় ভূমিকম্প: নিহতের সংখ্যা ২৮০০ ছাড়াল

২ হাজার ৮০০ ছাড়িয়ে গেছে উত্তর আফ্রিকার দেশ মরক্কোতে ভয়াবহ ভূমিকম্পে প্রাণহানি। স্মরণকালের ভয়াবহ এই ভূমিকম্পে আহত হয়েছেন আরও কয়েক হাজার মানুষ। ধ্বংস হয়েছে অসংখ্য বাড়িঘর।

ভূমিকম্পের চতুর্থ দিনেও ধ্বংসস্তুপের নিচে থেকে বের করা হচ্ছে মরদেহ। বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, বেঁচে যাওয়া মানুষেরা ক্যাম্পের বাইরে সাহায্যের জন্য অধীর হয়ে অপেক্ষা করছেন।

এদিকে মরক্কোর উদ্ধারকারী দলের সঙ্গে যোগ দিয়েছে স্পেন, ব্রিটেন ও কাতারের উদ্ধারকারী দল। তারা জীবিতদের খুঁজে বের করতে মরিয়া হয়ে চেষ্টা করছে।

মরক্কোর রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন গতকাল সোমবার জানিয়েছে, মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২ হাজার ৮৬২ জনে দাঁড়িয়েছে। আহত হয়েছেন ২ হাজার ৫৬২ জন। তবে এখনো কত মানুষ নিখোঁজ রয়েছেন তা অনুমান করতে পারেনি কর্তৃপক্ষ।

রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভূমিকম্পে বিধ্বস্ত টিলমেল গ্রামে প্রায় সব বাড়ি বিধ্বস্ত হয়ে গেছে। ধ্বংসস্তুপের নিচে চাপা পড়ে থাকা অসংখ্যা গৃহপালিত পশুর মরদেহ থেকে দুর্গন্ধ ছড়াতে শুরু করেছে।

গত শুক্রবার স্থানীয় সময় রাত ১১টা ১১ মিনিটে ৬ দশমিক ৮ মাত্রার ভূমিকম্পে কেঁপে ওঠে মরক্কোর মধ্যাঞ্চল। বলা হচ্ছে, উত্তর আফ্রিকার এ দেশটিতে গত ১০০ বছরের মধ্যে এটি সবচেয়ে ভয়াবহ ভূমিকম্প।

যুক্তরাষ্ট্রের ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা জানায়, ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থল ভূমি থেকে ১৮ দশমিক ৫ কিলোমিটার গভীরে। আর কেন্দ্রস্থল মারাকেশ শহর থেকে প্রায় ৭১ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে। ১৯ মিনিট পর আবারো অনুভূত হয় ৪ দশমিক ৯ মাত্রার আরেকটি কম্পন। আতঙ্কিত হয়ে বাড়ি থেকে বের হয়ে সড়কের ওপর অবস্থান নেয় মানুষ।

নিউজবিজয়/এফএইচএন

👉 নিউজবিজয় ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন ✅

আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার দিন।

NewsBijoy24.Com

নিউজবিজয়২৪.কম একটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল। বস্তুনিষ্ঠ ও তথ্যভিত্তিক সংবাদ প্রকাশের প্রতিশ্রুতি নিয়ে ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাসে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। উৎসর্গ করলাম আমার বাবার নামে, যাঁর স্নেহ-সান্নিধ্যের পরশ পরিবারের সুখ-দু:খ,হাসি-কান্না,ব্যথা-বেদনার মাঝেও আপার শান্তিতে পরিবার তথা সমাজে মাথা উচুঁ করে নিজের অস্তিত্বকে মেলে ধরতে পেরেছি।

মরক্কোয় ভূমিকম্প: নিহতের সংখ্যা ২৮০০ ছাড়াল

প্রকাশিত সময় :- ০৯:২৭:৫৮ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩

২ হাজার ৮০০ ছাড়িয়ে গেছে উত্তর আফ্রিকার দেশ মরক্কোতে ভয়াবহ ভূমিকম্পে প্রাণহানি। স্মরণকালের ভয়াবহ এই ভূমিকম্পে আহত হয়েছেন আরও কয়েক হাজার মানুষ। ধ্বংস হয়েছে অসংখ্য বাড়িঘর।

ভূমিকম্পের চতুর্থ দিনেও ধ্বংসস্তুপের নিচে থেকে বের করা হচ্ছে মরদেহ। বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, বেঁচে যাওয়া মানুষেরা ক্যাম্পের বাইরে সাহায্যের জন্য অধীর হয়ে অপেক্ষা করছেন।

এদিকে মরক্কোর উদ্ধারকারী দলের সঙ্গে যোগ দিয়েছে স্পেন, ব্রিটেন ও কাতারের উদ্ধারকারী দল। তারা জীবিতদের খুঁজে বের করতে মরিয়া হয়ে চেষ্টা করছে।

মরক্কোর রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন গতকাল সোমবার জানিয়েছে, মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২ হাজার ৮৬২ জনে দাঁড়িয়েছে। আহত হয়েছেন ২ হাজার ৫৬২ জন। তবে এখনো কত মানুষ নিখোঁজ রয়েছেন তা অনুমান করতে পারেনি কর্তৃপক্ষ।

রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভূমিকম্পে বিধ্বস্ত টিলমেল গ্রামে প্রায় সব বাড়ি বিধ্বস্ত হয়ে গেছে। ধ্বংসস্তুপের নিচে চাপা পড়ে থাকা অসংখ্যা গৃহপালিত পশুর মরদেহ থেকে দুর্গন্ধ ছড়াতে শুরু করেছে।

গত শুক্রবার স্থানীয় সময় রাত ১১টা ১১ মিনিটে ৬ দশমিক ৮ মাত্রার ভূমিকম্পে কেঁপে ওঠে মরক্কোর মধ্যাঞ্চল। বলা হচ্ছে, উত্তর আফ্রিকার এ দেশটিতে গত ১০০ বছরের মধ্যে এটি সবচেয়ে ভয়াবহ ভূমিকম্প।

যুক্তরাষ্ট্রের ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা জানায়, ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থল ভূমি থেকে ১৮ দশমিক ৫ কিলোমিটার গভীরে। আর কেন্দ্রস্থল মারাকেশ শহর থেকে প্রায় ৭১ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে। ১৯ মিনিট পর আবারো অনুভূত হয় ৪ দশমিক ৯ মাত্রার আরেকটি কম্পন। আতঙ্কিত হয়ে বাড়ি থেকে বের হয়ে সড়কের ওপর অবস্থান নেয় মানুষ।

নিউজবিজয়/এফএইচএন