বীরগঞ্জ সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে যোগদান না করে বেতনের জন্য প্রধান শিক্ষককে লাঞ্চিত » NewsBijoy24 Online Newspaper of Bangladesh.
ঢাকা ০১:৫০ অপরাহ্ন, রবিবার, ১০ ডিসেম্বর ২০২৩, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

https://www.newsbijoy24.com/category/dengue-update/

বীরগঞ্জ সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে যোগদান না করে বেতনের জন্য প্রধান শিক্ষককে লাঞ্চিত

অজিত চন্দ্র রায় গত ১২/০৩/২২ ইং তারিখে বদলী হয়ে বীরগঞ্জ সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় হতে ছাড়পত্র নিয়ে লালমনিরহাট জেলার পাটগ্রাম হুজুর উদ্দীন সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে যোগদান করেন।
পরবর্তীতে ২০/০৩/২২ ইং তারিখে বদলী আদেশ বাতিল হয়েছে সত্য কিন্তু তিনি বীরগঞ্জ সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে পুনরায় যোগদান করেন নি। তিনি বদলী আদেশ বাতিল বা পুনরাদেশ এর পক্ষে কোন কাগজ পত্র উক্ত বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের কার্যালয়ে দাখিল করেন নি এমন কি প্রধান শিক্ষকের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন নি বা বিদ্যালয়ে যোগদান করার আগ্রহ লিখিত বা মৌখিক ভাবেও প্রকাশ করেন নি।
বিদ্যালয়ের ক্লাস রুটিনেও তার নাম নাই অথচ তিনি এ সংক্রান্ত কোন অভিযোগ বা ক্লাস করার আগ্রহ প্রকাশ করেন নি বা রুটিনে তার নামে ক্লাস বন্টনের দাবী তোলেন নি।
তিনি শিক্ষক হাজিরা খাতায় তার নাম তোলার দাবী করেন নি। কতৃপক্ষ তার নাম প্রথম দুই মাস হাজিরা খাতায় তালিকাভুক্ত করলেও তিনি চাকুরী করতে অনাগ্রহ প্রকাশের কারণে স্বাক্ষর করছেন না বলে বিবেচিত হওয়ায় বর্তমান মাসে তার নাম শিক্ষক হাজিরা খাতায় তালিকাভুক্ত করা হয় নাই। উনার নাম তালিকা ভুক্ত না করলেও তিনি এ সংক্রান্ত কোন অভিযোগ বা নাম তালিকা ভুক্ত করার দাবি উত্থাপন করেন নি।
এখন তিনি প্রশাসন বিরোধী কার্যকলাপে লিপ্ত রয়েছেন।প্রথম দিকে শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং শিক্ষা অধিদপ্তরের বিরুদ্ধে বিভিন্ন ধরনের বিরূপ মন্তব্য প্রকাশ ও প্রচারে লিপ্ত থাকলেও এখন তিনি ডি ডি, ডিও এবং প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে সমালোচনা করে বেড়াচ্ছেন।
এ ব্যাপারে প্রধান শিক্ষক মোঃ রেজাউল করিমকে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন, অজিত চন্দ্র রায এখন পর্যন্ত আমার সঙ্গে দেখা করেন নি, আমার কাছে মৌখিক বা লিখিত ভাবে অত্র বিদ্যালয়ে যোগদান করার ইচ্ছা প্রকাশ করেন নি।
তবে দীর্ঘ দিন পর গত মাসের শেষের দিকে আমার কাছে বেতনের জন্য আমার সঙ্গে অসৌজন্য আচরণ করেন , শারীরিক ভাবে লাঞ্চিত করতে উদ্যত হোন এবং অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন।গালি গালাজ এ তার সাথে আরও দুই

নিউজবিজয়/এ্ফএইচএন

নিউজবিজয় ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার দিন।

NewsBijoy24.Com

নিউজবিজয়২৪.কম একটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল। বস্তুনিষ্ঠ ও তথ্যভিত্তিক সংবাদ প্রকাশের প্রতিশ্রুতি নিয়ে ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাসে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। উৎসর্গ করলাম আমার বাবার নামে, যাঁর স্নেহ-সান্নিধ্যের পরশ পরিবারের সুখ-দু:খ,হাসি-কান্না,ব্যথা-বেদনার মাঝেও আপার শান্তিতে পরিবার তথা সমাজে মাথা উচুঁ করে নিজের অস্তিত্বকে মেলে ধরতে পেরেছি।

বীরগঞ্জ সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে যোগদান না করে বেতনের জন্য প্রধান শিক্ষককে লাঞ্চিত

প্রকাশিত সময় :- ০৫:৩৬:১৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২

অজিত চন্দ্র রায় গত ১২/০৩/২২ ইং তারিখে বদলী হয়ে বীরগঞ্জ সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় হতে ছাড়পত্র নিয়ে লালমনিরহাট জেলার পাটগ্রাম হুজুর উদ্দীন সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে যোগদান করেন।
পরবর্তীতে ২০/০৩/২২ ইং তারিখে বদলী আদেশ বাতিল হয়েছে সত্য কিন্তু তিনি বীরগঞ্জ সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে পুনরায় যোগদান করেন নি। তিনি বদলী আদেশ বাতিল বা পুনরাদেশ এর পক্ষে কোন কাগজ পত্র উক্ত বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের কার্যালয়ে দাখিল করেন নি এমন কি প্রধান শিক্ষকের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন নি বা বিদ্যালয়ে যোগদান করার আগ্রহ লিখিত বা মৌখিক ভাবেও প্রকাশ করেন নি।
বিদ্যালয়ের ক্লাস রুটিনেও তার নাম নাই অথচ তিনি এ সংক্রান্ত কোন অভিযোগ বা ক্লাস করার আগ্রহ প্রকাশ করেন নি বা রুটিনে তার নামে ক্লাস বন্টনের দাবী তোলেন নি।
তিনি শিক্ষক হাজিরা খাতায় তার নাম তোলার দাবী করেন নি। কতৃপক্ষ তার নাম প্রথম দুই মাস হাজিরা খাতায় তালিকাভুক্ত করলেও তিনি চাকুরী করতে অনাগ্রহ প্রকাশের কারণে স্বাক্ষর করছেন না বলে বিবেচিত হওয়ায় বর্তমান মাসে তার নাম শিক্ষক হাজিরা খাতায় তালিকাভুক্ত করা হয় নাই। উনার নাম তালিকা ভুক্ত না করলেও তিনি এ সংক্রান্ত কোন অভিযোগ বা নাম তালিকা ভুক্ত করার দাবি উত্থাপন করেন নি।
এখন তিনি প্রশাসন বিরোধী কার্যকলাপে লিপ্ত রয়েছেন।প্রথম দিকে শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং শিক্ষা অধিদপ্তরের বিরুদ্ধে বিভিন্ন ধরনের বিরূপ মন্তব্য প্রকাশ ও প্রচারে লিপ্ত থাকলেও এখন তিনি ডি ডি, ডিও এবং প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে সমালোচনা করে বেড়াচ্ছেন।
এ ব্যাপারে প্রধান শিক্ষক মোঃ রেজাউল করিমকে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন, অজিত চন্দ্র রায এখন পর্যন্ত আমার সঙ্গে দেখা করেন নি, আমার কাছে মৌখিক বা লিখিত ভাবে অত্র বিদ্যালয়ে যোগদান করার ইচ্ছা প্রকাশ করেন নি।
তবে দীর্ঘ দিন পর গত মাসের শেষের দিকে আমার কাছে বেতনের জন্য আমার সঙ্গে অসৌজন্য আচরণ করেন , শারীরিক ভাবে লাঞ্চিত করতে উদ্যত হোন এবং অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন।গালি গালাজ এ তার সাথে আরও দুই

নিউজবিজয়/এ্ফএইচএন