ঢাকা ১০:১৩ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিশ্ব পরিবেশ দিবস

বীরগঞ্জে অনভিজ্ঞ ডাক্তার দিয়ে সিজার: বিভিন্ন ধরনের অহেতুক পরীক্ষায় সর্বশান্ত রোগীরা

দিনাজপুরের বীরগঞ্জে ৮টি ক্লিনিকের অসমাপ্ত কাগজ পত্র ও অনভিজ্ঞ ডাক্তার দিয়ে চলছে সিজারের কার্যক্রম। সর্ব ক্ষনিক বিজ্ঞ ডাক্তার, নার্স থাকার নিয়ম থাকলেও অসাধু ক্লিনিক ব্যবসায়ীরা অল্প পয়সায় অনভিজ্ঞ ডাক্তার ও নার্স দিয়ে চালিয়ে যাচ্ছেন সিজারের কার্যক্রম আর অনভিজ্ঞ ডাক্তার দিয়ে সিজার করার কারনে প্রতিনিয়ত মা অথবা বাচ্চা মারা যাচ্ছেন। প্রসুতির অভিভাবকরা বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ করেও ফল না পাওয়ার কারনে বাধ্য হয়ে এক শ্রেনীর দালালের ক্ষপ্পরে পরে মিমাংসা করছেন। বীরগঞ্জে ৮ ক্লিনিকের মধ্যে মর্ডান ক্লিনিকের কাগজ পত্র দীর্ঘদিন ধরে নবায়ন না থাকলে জোরে সরে চালিয়ে যাচ্ছেন ক্লিনিক ব্যবসা তার খুঁটির জোর কোথায়? বীরগঞ্জে ১১টি ডায়াগনস্টিক সেন্টারের মধ্যে সেবা ডায়াগনস্টিক সেন্টর, আধুনিক ডায়াগনস্টিক সেন্টার, বীরগঞ্জ ডায়াটেক্টিস হাসপাতালের কাগজ পএ নবায়ন রয়েছে বাকি গুলো দীর্ঘ দিন ধরে নবায়ন ছাড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন তাদের ব্যবসা। আর এসব ডায়াগনস্টিক সেন্টারগুলোতে ডাক্তার বসিয়ে হাতিয়ে নিচ্ছেন অর্থ। ডাক্তাররা একজন রোগী দেখে ভিজিট নিচ্ছেন পাঁচশত টাকা আর একজন রোগীর অহেতুক বিভিন্ন ধরনের পরীক্ষা নীরিক্ষা দিয়ে কমিশন পেয়ে থাকেন দুই হাজার থেকে পাঁচ হাজার টাকা পর্যন্ত। এ ভাবে প্রতিনিযত গ্রামের সহজ সরল সাধারণ রোগীরা চিকিৎসা নিতে এসে প্রতারনার স্বীকার হচ্ছেন। আর এসব ক্লিনিক মালিক গন বীরগঞ্জ উপজেলার ১১ টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভায় দালাল নিয়োগ করেছেন কোন মহিলা গর্ভবতী হওয়ার পর থেকে তার পিছনে আঠার মতো লেগে থাকে তাকে তখন তাকে ক্লিনিকে নিয়ে এসে সিজার করে তার কমিশন পাবেন। একজন সিজারের রোগী নিয়ে আসলে ক্লিনিক মালিক দালালরা পেয়ে থাকেন দুই হাজার টাকা। বিনা পয়সায বীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নরমাল ভাবে প্রসুতিরদের ডেলিভারির ব্যবস্হা থাকলেও অসাধু ক্লিনিক ব্যবসাী এবং দালালের খপ্পরে পরে সর্বশান্ত হচ্ছেন প্রসুতিদের পরিবারের লোকজন। এব্যাপা্ের দিনাজপুর জেলা সিভিল সার্জনে ডা, এ এইচ এম বোরহান উল সিদ্দিকীর সঙ্গে মুঠো ফোনে এবিষয়ে কথা বললে তিনি বলেন কোন রোগীদের অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

নিউজবিজয়২৪/এফএইচএন

👉 নিউজবিজয় ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন ✅

আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার দিন।

NewsBijoy24.Com

নিউজবিজয়২৪.কম একটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল। বস্তুনিষ্ঠ ও তথ্যভিত্তিক সংবাদ প্রকাশের প্রতিশ্রুতি নিয়ে ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাসে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। উৎসর্গ করলাম আমার বাবার নামে, যাঁর স্নেহ-সান্নিধ্যের পরশ পরিবারের সুখ-দু:খ,হাসি-কান্না,ব্যথা-বেদনার মাঝেও আপার শান্তিতে পরিবার তথা সমাজে মাথা উচুঁ করে নিজের অস্তিত্বকে মেলে ধরতে পেরেছি।

আজ পবিত্র হজ, লাব্বাইক ধ্বনিতে মুখর আরাফার ময়দান

বীরগঞ্জে অনভিজ্ঞ ডাক্তার দিয়ে সিজার: বিভিন্ন ধরনের অহেতুক পরীক্ষায় সর্বশান্ত রোগীরা

প্রকাশিত সময় :- ০২:৪৪:৪৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ২২ জুলাই ২০২৩

দিনাজপুরের বীরগঞ্জে ৮টি ক্লিনিকের অসমাপ্ত কাগজ পত্র ও অনভিজ্ঞ ডাক্তার দিয়ে চলছে সিজারের কার্যক্রম। সর্ব ক্ষনিক বিজ্ঞ ডাক্তার, নার্স থাকার নিয়ম থাকলেও অসাধু ক্লিনিক ব্যবসায়ীরা অল্প পয়সায় অনভিজ্ঞ ডাক্তার ও নার্স দিয়ে চালিয়ে যাচ্ছেন সিজারের কার্যক্রম আর অনভিজ্ঞ ডাক্তার দিয়ে সিজার করার কারনে প্রতিনিয়ত মা অথবা বাচ্চা মারা যাচ্ছেন। প্রসুতির অভিভাবকরা বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ করেও ফল না পাওয়ার কারনে বাধ্য হয়ে এক শ্রেনীর দালালের ক্ষপ্পরে পরে মিমাংসা করছেন। বীরগঞ্জে ৮ ক্লিনিকের মধ্যে মর্ডান ক্লিনিকের কাগজ পত্র দীর্ঘদিন ধরে নবায়ন না থাকলে জোরে সরে চালিয়ে যাচ্ছেন ক্লিনিক ব্যবসা তার খুঁটির জোর কোথায়? বীরগঞ্জে ১১টি ডায়াগনস্টিক সেন্টারের মধ্যে সেবা ডায়াগনস্টিক সেন্টর, আধুনিক ডায়াগনস্টিক সেন্টার, বীরগঞ্জ ডায়াটেক্টিস হাসপাতালের কাগজ পএ নবায়ন রয়েছে বাকি গুলো দীর্ঘ দিন ধরে নবায়ন ছাড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন তাদের ব্যবসা। আর এসব ডায়াগনস্টিক সেন্টারগুলোতে ডাক্তার বসিয়ে হাতিয়ে নিচ্ছেন অর্থ। ডাক্তাররা একজন রোগী দেখে ভিজিট নিচ্ছেন পাঁচশত টাকা আর একজন রোগীর অহেতুক বিভিন্ন ধরনের পরীক্ষা নীরিক্ষা দিয়ে কমিশন পেয়ে থাকেন দুই হাজার থেকে পাঁচ হাজার টাকা পর্যন্ত। এ ভাবে প্রতিনিযত গ্রামের সহজ সরল সাধারণ রোগীরা চিকিৎসা নিতে এসে প্রতারনার স্বীকার হচ্ছেন। আর এসব ক্লিনিক মালিক গন বীরগঞ্জ উপজেলার ১১ টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভায় দালাল নিয়োগ করেছেন কোন মহিলা গর্ভবতী হওয়ার পর থেকে তার পিছনে আঠার মতো লেগে থাকে তাকে তখন তাকে ক্লিনিকে নিয়ে এসে সিজার করে তার কমিশন পাবেন। একজন সিজারের রোগী নিয়ে আসলে ক্লিনিক মালিক দালালরা পেয়ে থাকেন দুই হাজার টাকা। বিনা পয়সায বীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নরমাল ভাবে প্রসুতিরদের ডেলিভারির ব্যবস্হা থাকলেও অসাধু ক্লিনিক ব্যবসাী এবং দালালের খপ্পরে পরে সর্বশান্ত হচ্ছেন প্রসুতিদের পরিবারের লোকজন। এব্যাপা্ের দিনাজপুর জেলা সিভিল সার্জনে ডা, এ এইচ এম বোরহান উল সিদ্দিকীর সঙ্গে মুঠো ফোনে এবিষয়ে কথা বললে তিনি বলেন কোন রোগীদের অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

নিউজবিজয়২৪/এফএইচএন