ঢাকা ০১:১৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঈদ মুবারক

বর্ষায় ফ্যাশন করুন ভিন্ন ভাবে

মুসবা তিন্নি: [২] বর্ষাকাল শুরু হলেই রাস্তাঘাট কাদায় ভরে উঠে। ঢাকার রাস্তায় বেড়ে যায় বিরক্তিকর জ্যাম। কর্মজীবি নারী পুরুষদের জন্য এই সময় বাইরে যেতে নতুন চ্যলেঞ্জের মুখোমুখি হতে হয় । তাই দৈনন্দিন যারা কাজের জন্য বাইরে যান তাদেও অবশ্যই নিজের পোশাকের ব্যপাওে সচেতন হতেই হয় । সূত্র- বোল্ডস্কাই

[৩] নিচে কিছু সহজ টিপস দেয়া হলো

১.ঢিলেঢালা পোশাক পড়ুন : বৃষ্টির দিনে পানিতে ভিজে গেলে জামাকাপড় গায়ের সাথে লেগে থাকে। তাই এ সময় টাইট কাপড় চোপড় এড়িয়ে চলুন। এ সব কাপড়ে অস্বস্তি¡, ফুসকুড়ি বা অ্যালার্জি হতে পারে। এজন্য ঢিলেঢালা পোশাক বেছে নেয়া ভালো। এ সব পোশাক ভেজা অবস্থায় বা মাঝারি বৃষ্টিতেও আপনার শরীরের সাথে আঁকড়ে থাকে না। ঢিলেঢালা শার্ট, ওভারসাইজড টি-শার্ট, ফ্লেয়ার্ড স্কার্ট, ওভারসাইজড জ্যাকেট পড়তে পারেন। যা আপনাকে চ্যালেঞ্জিং আবহাওয়ায় আরাম দেবে।

২.ডেনিম থেকে দূরে থাকুন : যদিও ডেনিম দৈনন্দিন পোশাক হিসেবে উপযুক্ত। তারপরও বর্ষাকালে এটি থেকে দূরে থাকুন। কারণ ভেজা অবস্থায় ডেনিম বা জিন্স ভারী হয়ে যায়। সহজে শুকায় না। তাই এর পরিবর্তে লেগিংস, সুতির প্যান্ট বা শর্টস বেছে নিতে পারেন।

৩.পোশাকের দৈর্ঘ্য : আর্দ্র, ভেজা বা কাদামাখা প্যান্টের চেয়ে বিরক্তিকর জিনিস আর কিছুই নেই। এজন্য বর্ষাকালে পোশাকের দৈর্ঘ্য বিবেচনা করা অপরিহার্য। এ সময় বেশি লম্বা পোশাক পড়া থেকে বিরত থাকুন। এর পরিবর্তে প্যালাজো, লেগিংস এবং স্কার্ট পরিধান করুন। যা আরাম এবং স্টাইল উভয়ই দিবে।

৪.স্কার্ফ : একটি স্কার্ফ বর্ষাকালে বহন করা অপরিহার্য। ভেজা পোশাক ঢেকে রাখতে আপনার হ্যান্ডব্যাগে একটি স্কার্ফ রাখুন। হঠাৎ বৃষ্টি হলে চুলে স্কার্ফ পেচিঁয়ে নিতে পারেন। এতে কিছুটা হলেও চুল ভিজে যাওয়া থেকে রক্ষা পাবেন। জ্যামিতিক প্যাটার্ন, বোটানিকাল প্যাটার্ন, অ্যাজটেক প্যাটার্নের মতো সুন্দর ডিজাইনযুক্ত প্রিন্টের স্কার্ফ বেছে নিন।

৫.রঙ : বর্ষাকালে হলুদ, কমলা, লাল এবং গোলাপির মতো উজ্জ্বল রঙগুলো নির্বাচন করুন। সাদা বা ক্রিমের মতো হালকা রঙগুলো এড়িয়ে চলুন। কারণ এগুলো বর্ষাও পানিতে ভিজে গেলে ছত্রাক হয় এছাড়াও কাদা লাগলে তা উঠতে চাই না।

৬.আরামদায়ক ফুটওয়্যার : বৃষ্টির দিনে রাস্তায় হাঁটা একটু কষ্টকর। কারণ কাদা থাকে। তাই দৈনন্দিন যাতায়াতের জন্য আরামদায়ক জুতা বেছে নিন। বর্ষাকালে হিল, স্টিলেটস এবং ক্লোজড স্টাইলের জুতা পুরোপুরি এড়িয়ে চলুন। এছাড়াও, চামড়া বা ভেলভেট ফ্যাব্রিক জুতা পড়াও উচিত নয়। উজ্জ্বল রঙের স্যান্ডেল, ফ্লিপ-ফ্লপ, রাবার জুতা, জেলি জুতা বা গামবুট পরুন।

নিউজবিজয়২৪/এফএইচএন

👉 নিউজবিজয় ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন ✅

আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার দিন।

NewsBijoy24.Com

নিউজবিজয়২৪.কম একটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল। বস্তুনিষ্ঠ ও তথ্যভিত্তিক সংবাদ প্রকাশের প্রতিশ্রুতি নিয়ে ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাসে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। উৎসর্গ করলাম আমার বাবার নামে, যাঁর স্নেহ-সান্নিধ্যের পরশ পরিবারের সুখ-দু:খ,হাসি-কান্না,ব্যথা-বেদনার মাঝেও আপার শান্তিতে পরিবার তথা সমাজে মাথা উচুঁ করে নিজের অস্তিত্বকে মেলে ধরতে পেরেছি।

বর্ষায় ফ্যাশন করুন ভিন্ন ভাবে

প্রকাশিত সময় :- ০৯:৫৬:৫৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৩ অগাস্ট ২০২৩

মুসবা তিন্নি: [২] বর্ষাকাল শুরু হলেই রাস্তাঘাট কাদায় ভরে উঠে। ঢাকার রাস্তায় বেড়ে যায় বিরক্তিকর জ্যাম। কর্মজীবি নারী পুরুষদের জন্য এই সময় বাইরে যেতে নতুন চ্যলেঞ্জের মুখোমুখি হতে হয় । তাই দৈনন্দিন যারা কাজের জন্য বাইরে যান তাদেও অবশ্যই নিজের পোশাকের ব্যপাওে সচেতন হতেই হয় । সূত্র- বোল্ডস্কাই

[৩] নিচে কিছু সহজ টিপস দেয়া হলো

১.ঢিলেঢালা পোশাক পড়ুন : বৃষ্টির দিনে পানিতে ভিজে গেলে জামাকাপড় গায়ের সাথে লেগে থাকে। তাই এ সময় টাইট কাপড় চোপড় এড়িয়ে চলুন। এ সব কাপড়ে অস্বস্তি¡, ফুসকুড়ি বা অ্যালার্জি হতে পারে। এজন্য ঢিলেঢালা পোশাক বেছে নেয়া ভালো। এ সব পোশাক ভেজা অবস্থায় বা মাঝারি বৃষ্টিতেও আপনার শরীরের সাথে আঁকড়ে থাকে না। ঢিলেঢালা শার্ট, ওভারসাইজড টি-শার্ট, ফ্লেয়ার্ড স্কার্ট, ওভারসাইজড জ্যাকেট পড়তে পারেন। যা আপনাকে চ্যালেঞ্জিং আবহাওয়ায় আরাম দেবে।

২.ডেনিম থেকে দূরে থাকুন : যদিও ডেনিম দৈনন্দিন পোশাক হিসেবে উপযুক্ত। তারপরও বর্ষাকালে এটি থেকে দূরে থাকুন। কারণ ভেজা অবস্থায় ডেনিম বা জিন্স ভারী হয়ে যায়। সহজে শুকায় না। তাই এর পরিবর্তে লেগিংস, সুতির প্যান্ট বা শর্টস বেছে নিতে পারেন।

৩.পোশাকের দৈর্ঘ্য : আর্দ্র, ভেজা বা কাদামাখা প্যান্টের চেয়ে বিরক্তিকর জিনিস আর কিছুই নেই। এজন্য বর্ষাকালে পোশাকের দৈর্ঘ্য বিবেচনা করা অপরিহার্য। এ সময় বেশি লম্বা পোশাক পড়া থেকে বিরত থাকুন। এর পরিবর্তে প্যালাজো, লেগিংস এবং স্কার্ট পরিধান করুন। যা আরাম এবং স্টাইল উভয়ই দিবে।

৪.স্কার্ফ : একটি স্কার্ফ বর্ষাকালে বহন করা অপরিহার্য। ভেজা পোশাক ঢেকে রাখতে আপনার হ্যান্ডব্যাগে একটি স্কার্ফ রাখুন। হঠাৎ বৃষ্টি হলে চুলে স্কার্ফ পেচিঁয়ে নিতে পারেন। এতে কিছুটা হলেও চুল ভিজে যাওয়া থেকে রক্ষা পাবেন। জ্যামিতিক প্যাটার্ন, বোটানিকাল প্যাটার্ন, অ্যাজটেক প্যাটার্নের মতো সুন্দর ডিজাইনযুক্ত প্রিন্টের স্কার্ফ বেছে নিন।

৫.রঙ : বর্ষাকালে হলুদ, কমলা, লাল এবং গোলাপির মতো উজ্জ্বল রঙগুলো নির্বাচন করুন। সাদা বা ক্রিমের মতো হালকা রঙগুলো এড়িয়ে চলুন। কারণ এগুলো বর্ষাও পানিতে ভিজে গেলে ছত্রাক হয় এছাড়াও কাদা লাগলে তা উঠতে চাই না।

৬.আরামদায়ক ফুটওয়্যার : বৃষ্টির দিনে রাস্তায় হাঁটা একটু কষ্টকর। কারণ কাদা থাকে। তাই দৈনন্দিন যাতায়াতের জন্য আরামদায়ক জুতা বেছে নিন। বর্ষাকালে হিল, স্টিলেটস এবং ক্লোজড স্টাইলের জুতা পুরোপুরি এড়িয়ে চলুন। এছাড়াও, চামড়া বা ভেলভেট ফ্যাব্রিক জুতা পড়াও উচিত নয়। উজ্জ্বল রঙের স্যান্ডেল, ফ্লিপ-ফ্লপ, রাবার জুতা, জেলি জুতা বা গামবুট পরুন।

নিউজবিজয়২৪/এফএইচএন