ঢাকা ১০:২৮ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পীরগাছা উপজেলা পরিষদ নির্বাচন চতুর্থমূখী লড়াইয়ে উত্তাপ্ত নির্বাচনী মাঠ

রংপুরের পীরগাছায় বেশ সরগরম হয়ে উঠছে উপজেলা নির্বাচনী মাঠ। প্রথম ধাপের এ নির্বাচনে ভোট গ্রহনের আর মাত্র একদিন বাকি। উপজেলার ৯টি ইউনিয়নের মাঠঘাট চষে বেড়াচ্ছেন প্রার্থীরা। ৪ জন চেয়ারম্যান প্রার্থীর মধ্যে ৩ জন আওয়ামীলীগের ও একজন জাতীয় পাটির হওয়ায় বেশ উত্তাপ্ত নির্বাচনী মাঠ। কেউ কাউকে ছাড় দিতে নারাজ। সমান তালে চলছে প্রচার-প্রচারণা। আওয়ামীলীগের ৩ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী হওয়ায় জাতীয় পাটির প্রার্থী একক সুবিধা নেওয়ার জন্য উঠেপড়ে লাগলেও সাধারন ভোটাররা মনে করছেন চতুর্থমূখী লড়াইয় জিততে হবে যে কাউকে। তবে মাঠ ঘুরে দেখা গেছে, সব খানেই ৪ প্রার্থীর জোরালো ভূমিকা। জমজমাট প্রচার-প্রচারণায় মুখর হয়ে উঠছে গোটা উপজেলা। সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত চলছে গণসংযোগ। ব্যানার-পোষ্টার আর বিলবোর্ডে ছেয়ে গেছে গ্রাম থেকে শহর পর্যন্ত। তবে চেয়ারম্যান হতে মাঠে রয়েছে উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি তছলিম উদ্দিন (আনারস), সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ মিলন (মোটর সাইকেল), জেলা আ.লীগের সদস্য মনোয়ারুল ইসলাম মাসুদ (দোয়াত কলম) ও বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান শাহ মাহবুবার রহমান (ঘোড়া)। এদের মধ্যে দুই মেয়াদে দায়িত্ব পালন করছেন শাহ মাহবুবার রহমান। আর তৃতীয় বারের মতো নির্বাচন করছেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ মিলন। অন্যদিকে তছলিম উদ্দিন ও মনোয়ারুল ইসলাম মাসুদ প্রথম বারের মতো নির্বাচনে লড়ছেন। এই নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন ৪ জন এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন ৬ জন প্রার্থী। ভোটাররা বলছেন, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে তেমন কোন প্রতিদ্বন্দীতা হবে না। তাদের মতে, ভাইস চেয়ারম্যান পদে মরহুম শাহ আব্দুর রাজ্জাক এমপির নাতি সমাজ সেবক শাহ মো: শারেখ খন্দকার জয় (মাইক) আর বিএনপির বহিষ্কৃত নেতা শাহ ফরহাদ হোসেন অনু (চশমা) মধ্যে লড়াই হবে। আর মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে শারিরিক প্রতিবন্ধী ইশরাত জাহান সুইটি (প্রজাপতি) ও রেহেনা বেগম (পদ্মফুল) প্রাথীর মধ্যে লড়াই হবে। এদের মধ্যে ইশরাত জাহান সুইটি সাধারন মানুষের মনে আস্থা করে নিয়েছেন। তাই বিপুল ভোটে তার জয়ের সম্ভাবনা বেশি।
মোস্তাক আহম্মেদ, নজরুল ইসলাম, শহিদুল ইসলামসহ বেশ কয়েকজন ভোটার বলেন, আমরা সুস্থ্য-সুন্দর নির্বাচন চাই। ভোট কেন্দ্রে কোন ঝামেলা না হলে মানুষ স্বাচ্ছন্দে ভোট দিতে পারবে। আমরা আপদে-বিপদে যাকে কাছে পাওয়া যাবে, তাকেই ভোট দিবো।
পীরগাছা উপজেলার ৯টি ইউনিয়নে ২ লাখ ৮২ হাজার ভোটার রয়েছে। ১১৩ ভোট কেন্দ্রে ৭৬০টি বুথে ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হবে।

আরও পড়ুন>>পীরগাছায় চাচাতো ভাইয়ের লাঠির আঘাতে যুবক নিহত

নিউজবিজয়২৪/এফএইচএন

👉 নিউজবিজয় ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন ✅

আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার দিন।

NewsBijoy24.Com

নিউজবিজয়২৪.কম একটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল। বস্তুনিষ্ঠ ও তথ্যভিত্তিক সংবাদ প্রকাশের প্রতিশ্রুতি নিয়ে ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাসে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। উৎসর্গ করলাম আমার বাবার নামে, যাঁর স্নেহ-সান্নিধ্যের পরশ পরিবারের সুখ-দু:খ,হাসি-কান্না,ব্যথা-বেদনার মাঝেও আপার শান্তিতে পরিবার তথা সমাজে মাথা উচুঁ করে নিজের অস্তিত্বকে মেলে ধরতে পেরেছি।

রাজধানীতে কক্সবাজার এক্সপ্রেসের বগি বিচ্ছিন্ন

পীরগাছা উপজেলা পরিষদ নির্বাচন চতুর্থমূখী লড়াইয়ে উত্তাপ্ত নির্বাচনী মাঠ

প্রকাশিত সময় :- ০৪:৫৬:২৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ৫ মে ২০২৪

রংপুরের পীরগাছায় বেশ সরগরম হয়ে উঠছে উপজেলা নির্বাচনী মাঠ। প্রথম ধাপের এ নির্বাচনে ভোট গ্রহনের আর মাত্র একদিন বাকি। উপজেলার ৯টি ইউনিয়নের মাঠঘাট চষে বেড়াচ্ছেন প্রার্থীরা। ৪ জন চেয়ারম্যান প্রার্থীর মধ্যে ৩ জন আওয়ামীলীগের ও একজন জাতীয় পাটির হওয়ায় বেশ উত্তাপ্ত নির্বাচনী মাঠ। কেউ কাউকে ছাড় দিতে নারাজ। সমান তালে চলছে প্রচার-প্রচারণা। আওয়ামীলীগের ৩ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী হওয়ায় জাতীয় পাটির প্রার্থী একক সুবিধা নেওয়ার জন্য উঠেপড়ে লাগলেও সাধারন ভোটাররা মনে করছেন চতুর্থমূখী লড়াইয় জিততে হবে যে কাউকে। তবে মাঠ ঘুরে দেখা গেছে, সব খানেই ৪ প্রার্থীর জোরালো ভূমিকা। জমজমাট প্রচার-প্রচারণায় মুখর হয়ে উঠছে গোটা উপজেলা। সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত চলছে গণসংযোগ। ব্যানার-পোষ্টার আর বিলবোর্ডে ছেয়ে গেছে গ্রাম থেকে শহর পর্যন্ত। তবে চেয়ারম্যান হতে মাঠে রয়েছে উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি তছলিম উদ্দিন (আনারস), সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ মিলন (মোটর সাইকেল), জেলা আ.লীগের সদস্য মনোয়ারুল ইসলাম মাসুদ (দোয়াত কলম) ও বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান শাহ মাহবুবার রহমান (ঘোড়া)। এদের মধ্যে দুই মেয়াদে দায়িত্ব পালন করছেন শাহ মাহবুবার রহমান। আর তৃতীয় বারের মতো নির্বাচন করছেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ মিলন। অন্যদিকে তছলিম উদ্দিন ও মনোয়ারুল ইসলাম মাসুদ প্রথম বারের মতো নির্বাচনে লড়ছেন। এই নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন ৪ জন এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন ৬ জন প্রার্থী। ভোটাররা বলছেন, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে তেমন কোন প্রতিদ্বন্দীতা হবে না। তাদের মতে, ভাইস চেয়ারম্যান পদে মরহুম শাহ আব্দুর রাজ্জাক এমপির নাতি সমাজ সেবক শাহ মো: শারেখ খন্দকার জয় (মাইক) আর বিএনপির বহিষ্কৃত নেতা শাহ ফরহাদ হোসেন অনু (চশমা) মধ্যে লড়াই হবে। আর মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে শারিরিক প্রতিবন্ধী ইশরাত জাহান সুইটি (প্রজাপতি) ও রেহেনা বেগম (পদ্মফুল) প্রাথীর মধ্যে লড়াই হবে। এদের মধ্যে ইশরাত জাহান সুইটি সাধারন মানুষের মনে আস্থা করে নিয়েছেন। তাই বিপুল ভোটে তার জয়ের সম্ভাবনা বেশি।
মোস্তাক আহম্মেদ, নজরুল ইসলাম, শহিদুল ইসলামসহ বেশ কয়েকজন ভোটার বলেন, আমরা সুস্থ্য-সুন্দর নির্বাচন চাই। ভোট কেন্দ্রে কোন ঝামেলা না হলে মানুষ স্বাচ্ছন্দে ভোট দিতে পারবে। আমরা আপদে-বিপদে যাকে কাছে পাওয়া যাবে, তাকেই ভোট দিবো।
পীরগাছা উপজেলার ৯টি ইউনিয়নে ২ লাখ ৮২ হাজার ভোটার রয়েছে। ১১৩ ভোট কেন্দ্রে ৭৬০টি বুথে ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হবে।

আরও পড়ুন>>পীরগাছায় চাচাতো ভাইয়ের লাঠির আঘাতে যুবক নিহত

নিউজবিজয়২৪/এফএইচএন