ঢাকা ১২:০৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিশ্ব পরিবেশ দিবস

পাটগ্রাম সেফটি ট্যাংকে পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু, আহত ১

লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলায় সেফটি ট্যাংক পরিস্কার করতে গিয়ে খাইরুল ইসলাম (৩৫) নামে এক শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। এসময় ওই ঘটনায় শ্রমিক আহত হয়েছেন।।

শনিবার (১৫ এপ্রিল) সন্ধ্যায় উপজেলার শ্রীরামপুর ইউনিয়নের বুড়িরবাড়ি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। মৃত খায়রুল ইসলাম উপজেলার শ্রীরামপুর ইউনিয়নের অহিদুল ইসলাম ইসলামের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, জুলপি মিয়ার বাড়ির সেফটি ট্যাংক পরিস্কারের কয়েকজন শ্রমিক কাজ করছিল। হঠাৎ করে সেফটি ট্যাংকে খাইরুল ইসলামসহ এরশাদ হোসেন পড়ে যান। দীর্ঘ সময় চেষ্টার পর উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ নিয়ে যাওয়ার পথে খাইরুল ইসলাম মারা যান। ওই সময় এরশাদ হোসেন নামে ওই ব্যক্তি আশঙ্কা জনক হলে রংপুর মেডিকেলে রেফার করেন।

চিকিৎসা করা জানান, খায়রুল ইসলাম সেফটি ট্যাংকি অক্সিজেনের অভাবে হাসপাতালে নিয়ে আসার আগেই সেখানে মারা গেছেন।

শ্রীরামপুর ইউনিয়নের এক নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য তুহিন মিয়া বলেন, বিষয়টি জানার পর ওই বাড়িতে গিয়েছিলাম।

পাটগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি ওমর ফারুক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, তাৎক্ষণিক খবর পেয়েছিলে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। মৃত খায়রুল ইসলামের পরিবারের পক্ষ থেকে এখনো কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে অবশ্যই ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

নিউজবিজয়২৪/এফএইচএন

👉 নিউজবিজয় ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন ✅

আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার দিন।

NewsBijoy24.Com

নিউজবিজয়২৪.কম একটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল। বস্তুনিষ্ঠ ও তথ্যভিত্তিক সংবাদ প্রকাশের প্রতিশ্রুতি নিয়ে ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাসে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। উৎসর্গ করলাম আমার বাবার নামে, যাঁর স্নেহ-সান্নিধ্যের পরশ পরিবারের সুখ-দু:খ,হাসি-কান্না,ব্যথা-বেদনার মাঝেও আপার শান্তিতে পরিবার তথা সমাজে মাথা উচুঁ করে নিজের অস্তিত্বকে মেলে ধরতে পেরেছি।

পাটগ্রাম সেফটি ট্যাংকে পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু, আহত ১

প্রকাশিত সময় :- ০২:৪৪:৪৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৩

লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলায় সেফটি ট্যাংক পরিস্কার করতে গিয়ে খাইরুল ইসলাম (৩৫) নামে এক শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। এসময় ওই ঘটনায় শ্রমিক আহত হয়েছেন।।

শনিবার (১৫ এপ্রিল) সন্ধ্যায় উপজেলার শ্রীরামপুর ইউনিয়নের বুড়িরবাড়ি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। মৃত খায়রুল ইসলাম উপজেলার শ্রীরামপুর ইউনিয়নের অহিদুল ইসলাম ইসলামের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, জুলপি মিয়ার বাড়ির সেফটি ট্যাংক পরিস্কারের কয়েকজন শ্রমিক কাজ করছিল। হঠাৎ করে সেফটি ট্যাংকে খাইরুল ইসলামসহ এরশাদ হোসেন পড়ে যান। দীর্ঘ সময় চেষ্টার পর উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ নিয়ে যাওয়ার পথে খাইরুল ইসলাম মারা যান। ওই সময় এরশাদ হোসেন নামে ওই ব্যক্তি আশঙ্কা জনক হলে রংপুর মেডিকেলে রেফার করেন।

চিকিৎসা করা জানান, খায়রুল ইসলাম সেফটি ট্যাংকি অক্সিজেনের অভাবে হাসপাতালে নিয়ে আসার আগেই সেখানে মারা গেছেন।

শ্রীরামপুর ইউনিয়নের এক নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য তুহিন মিয়া বলেন, বিষয়টি জানার পর ওই বাড়িতে গিয়েছিলাম।

পাটগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি ওমর ফারুক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, তাৎক্ষণিক খবর পেয়েছিলে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। মৃত খায়রুল ইসলামের পরিবারের পক্ষ থেকে এখনো কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে অবশ্যই ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

নিউজবিজয়২৪/এফএইচএন