ঢাকা ১১:২৭ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঈদ মোবারক

নতুন বাস দিয়ে পদ্মা সেতু পাড়ি দিতে চান তারা

  • নিউজ বিজয় ডেস্ক :-
  • প্রকাশিত সময় :- ১২:১৪:২৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ১ জুন ২০২২
  • ৩৪৯ পড়া হয়েছে। নিউজবিজয় ২৪.কম-১৫ ডিসেম্বরে ৯ বছরে পর্দাপন

পদ্মা সেতু উদ্বোধনের দিন থেকেই নতুন বাস দিয়ে যাত্রী পরিবহন শুরু করতে চান শরীয়তপুরের পরিবহন মালিকরা। পুরোদমে চলছে বাস তৈরির কাজ। নির্ধারণ করা হয়েছে ভাড়াও। প্রাথমিকভাবে প্রায় ২০০টি বাস দিয়ে ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জে যাত্রীসেবা চালু করতে চান তারা। পরিবহন মালিকরা বলছেন, এর ফলে দীর্ঘ ১৮ বছরের অচলাবস্থার অবসান হতে যাচ্ছে। তৈরি হচ্ছে নতুন কর্মসংস্থানের। অপেক্ষার প্রহর শেষ হতে বাকি আর মাত্র ২৪ দিন বাকি। শরীয়তপুরের বিভিন্ন ওয়াকর্শপে তাই ঘুম নেই কারিগরদের। চলছে ব্যাপক কর্মযজ্ঞ। বসানো হয়েছে চেসিস, বাকি শুধু বডি তৈরি ও সিট বসানোর কাজ। জেলার বাসিন্দারা স্বপ্নের পদ্মা সেতু পাড়ি দেবেন এ বাসে করেই। শরীয়তপুরের কয়েকটি ওয়ার্কশপেই চলছে নতুন বাস তৈরির কাজ। শরীয়তপুর সুপার সার্ভিস প্রাইভেট কোম্পানি নামে একটি প্রতিষ্ঠান খুলেছে সড়ক পরিবহন মালিক গ্রুপ। তারা ৩০টি নতুন বাস প্রস্তুত করছেন। শুধু এখানেই নয়, তাদের বাস তৈরির কাজ চলছে পাশের জেলা মাদারীপুর ও ঢাকায়। পরিবহন মালিকরা বলছেন, এ দিনটির জন্য তারা অপেক্ষা করছেন দীর্ঘ ১৮ বছর। পদ্মা সেতু চালু হলে তাদের ব্যবসা বাড়বে। শরীয়তপুর পরিবহন নামে একটি বাস কোম্পানি এরই মধ্যে ঢাকা-মাওয়া রুটে ২৫টি বাস দিয়ে যাত্রীসেবা দিয়ে আসছে। পদ্মা সেতু চালুর খবরে তাদের বহরে যুক্ত হতে যাচ্ছে আরও ৬০টি নতুন বাস। শরীয়তপুর পরিবহন মালিক গ্রুপের সভাপতি ফারুক আহম্মেদ তালুকদার বলেন, যাত্রীদের সুবিধার্থে নতুন মাত্রায় নতুন বাস সংযোজন করা হচ্ছে। নতুন এসি বাসও থাকছে, ভাড়া একটু বাড়ছে। এসিতে ৪০০ টাকা আর নন-এসিতে ৩০০ টাকা করে টিকিটের দাম ঠিক করা হয়েছে।
শরীয়তপুর পরিবহন মালিক গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক বাচ্ছু বেপারী বলেন, পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষ্যে আমরা একই রঙের ৩০টি বাস প্রস্তুত করেছি। আশা করছি ভালো ব্যবস্থা হবে। শরীয়তপুর পরিবহন পরিচালক আসাদুজ্জামান এরশাদ বলেন, পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষ্যে আমরা ৬০টি বাস দিয়ে শুরু করবো যাত্রী পরিবহন, তবে সেটি ধাপে ধাপে, একবারে নয়। রাস্তার অবস্থা ভালো হলে আমরা দ্রুত বাসের সংখ্যা বৃদ্ধি করা হবে। প্রাথমিকভাবে প্রায় ২০০টি বাস দিয়ে শরীয়তপুর ঢাকা বাস সার্ভিস চালু করতে চায় পরিবহন মালিকরা। তবে চালকরা বলছেন, যে সড়ক দিয়ে তারা সেতুতে উঠবেন সেটির সংস্কার প্রয়োজন।এলাকার সংসদ সদস্য বলছেন, টেন্ডার হয়েছে চার লেনের রাস্তার। কাজ শুরু হয়েছে। পরিবহন খাতে তৈরি হবে কর্মসংস্থানও। শরীয়তপুর ১ আসনের সংসদ সদস্য ইকবাল হোসেন অপু সময় সংবাদকে বলেন, ফায়ার সার্ভিস থেকে জাজিরা হয়ে কাজীরহাট পর্যন্ত চার লেনের কাজের টেন্ডার হয়েছে, কাজ শুরু হয়েছে। এটার সুফল এলাকার মানুষ পাবেন। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন পদ্মাসেতু হওয়ার পর জাজিরা হবে হংকং, সিঙ্গাপুরের মতো আধুনিক শহর। আমিও এটা আশা করি। শরীয়তপুর জেলার বাসিন্দারা নৌপথে ঢাকায় যাতায়াত করেন। পদ্মা সেতু চালুর খবরে জেলার সড়ক পরিবহন মালিকরা ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জে নতুন বাস সার্ভিস চালুর উদ্যোগ নিয়েছেন। তারা আশা করছেন, সেতুর উদ্বোধনের দিন থেকেই নতুন বাস দিয়ে যাত্রীসেবা চালু করতে পারবেন।
নিউজ বিজয/নজরুল

👉 নিউজবিজয় ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন ✅

আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার দিন।

NewsBijoy24.Com

নিউজবিজয়২৪.কম একটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল। বস্তুনিষ্ঠ ও তথ্যভিত্তিক সংবাদ প্রকাশের প্রতিশ্রুতি নিয়ে ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাসে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। উৎসর্গ করলাম আমার বাবার নামে, যাঁর স্নেহ-সান্নিধ্যের পরশ পরিবারের সুখ-দু:খ,হাসি-কান্না,ব্যথা-বেদনার মাঝেও আপার শান্তিতে পরিবার তথা সমাজে মাথা উচুঁ করে নিজের অস্তিত্বকে মেলে ধরতে পেরেছি।

১৫০ উপজেলায় প্রতীক বরাদ্দ আজ

নতুন বাস দিয়ে পদ্মা সেতু পাড়ি দিতে চান তারা

প্রকাশিত সময় :- ১২:১৪:২৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ১ জুন ২০২২

পদ্মা সেতু উদ্বোধনের দিন থেকেই নতুন বাস দিয়ে যাত্রী পরিবহন শুরু করতে চান শরীয়তপুরের পরিবহন মালিকরা। পুরোদমে চলছে বাস তৈরির কাজ। নির্ধারণ করা হয়েছে ভাড়াও। প্রাথমিকভাবে প্রায় ২০০টি বাস দিয়ে ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জে যাত্রীসেবা চালু করতে চান তারা। পরিবহন মালিকরা বলছেন, এর ফলে দীর্ঘ ১৮ বছরের অচলাবস্থার অবসান হতে যাচ্ছে। তৈরি হচ্ছে নতুন কর্মসংস্থানের। অপেক্ষার প্রহর শেষ হতে বাকি আর মাত্র ২৪ দিন বাকি। শরীয়তপুরের বিভিন্ন ওয়াকর্শপে তাই ঘুম নেই কারিগরদের। চলছে ব্যাপক কর্মযজ্ঞ। বসানো হয়েছে চেসিস, বাকি শুধু বডি তৈরি ও সিট বসানোর কাজ। জেলার বাসিন্দারা স্বপ্নের পদ্মা সেতু পাড়ি দেবেন এ বাসে করেই। শরীয়তপুরের কয়েকটি ওয়ার্কশপেই চলছে নতুন বাস তৈরির কাজ। শরীয়তপুর সুপার সার্ভিস প্রাইভেট কোম্পানি নামে একটি প্রতিষ্ঠান খুলেছে সড়ক পরিবহন মালিক গ্রুপ। তারা ৩০টি নতুন বাস প্রস্তুত করছেন। শুধু এখানেই নয়, তাদের বাস তৈরির কাজ চলছে পাশের জেলা মাদারীপুর ও ঢাকায়। পরিবহন মালিকরা বলছেন, এ দিনটির জন্য তারা অপেক্ষা করছেন দীর্ঘ ১৮ বছর। পদ্মা সেতু চালু হলে তাদের ব্যবসা বাড়বে। শরীয়তপুর পরিবহন নামে একটি বাস কোম্পানি এরই মধ্যে ঢাকা-মাওয়া রুটে ২৫টি বাস দিয়ে যাত্রীসেবা দিয়ে আসছে। পদ্মা সেতু চালুর খবরে তাদের বহরে যুক্ত হতে যাচ্ছে আরও ৬০টি নতুন বাস। শরীয়তপুর পরিবহন মালিক গ্রুপের সভাপতি ফারুক আহম্মেদ তালুকদার বলেন, যাত্রীদের সুবিধার্থে নতুন মাত্রায় নতুন বাস সংযোজন করা হচ্ছে। নতুন এসি বাসও থাকছে, ভাড়া একটু বাড়ছে। এসিতে ৪০০ টাকা আর নন-এসিতে ৩০০ টাকা করে টিকিটের দাম ঠিক করা হয়েছে।
শরীয়তপুর পরিবহন মালিক গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক বাচ্ছু বেপারী বলেন, পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষ্যে আমরা একই রঙের ৩০টি বাস প্রস্তুত করেছি। আশা করছি ভালো ব্যবস্থা হবে। শরীয়তপুর পরিবহন পরিচালক আসাদুজ্জামান এরশাদ বলেন, পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষ্যে আমরা ৬০টি বাস দিয়ে শুরু করবো যাত্রী পরিবহন, তবে সেটি ধাপে ধাপে, একবারে নয়। রাস্তার অবস্থা ভালো হলে আমরা দ্রুত বাসের সংখ্যা বৃদ্ধি করা হবে। প্রাথমিকভাবে প্রায় ২০০টি বাস দিয়ে শরীয়তপুর ঢাকা বাস সার্ভিস চালু করতে চায় পরিবহন মালিকরা। তবে চালকরা বলছেন, যে সড়ক দিয়ে তারা সেতুতে উঠবেন সেটির সংস্কার প্রয়োজন।এলাকার সংসদ সদস্য বলছেন, টেন্ডার হয়েছে চার লেনের রাস্তার। কাজ শুরু হয়েছে। পরিবহন খাতে তৈরি হবে কর্মসংস্থানও। শরীয়তপুর ১ আসনের সংসদ সদস্য ইকবাল হোসেন অপু সময় সংবাদকে বলেন, ফায়ার সার্ভিস থেকে জাজিরা হয়ে কাজীরহাট পর্যন্ত চার লেনের কাজের টেন্ডার হয়েছে, কাজ শুরু হয়েছে। এটার সুফল এলাকার মানুষ পাবেন। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন পদ্মাসেতু হওয়ার পর জাজিরা হবে হংকং, সিঙ্গাপুরের মতো আধুনিক শহর। আমিও এটা আশা করি। শরীয়তপুর জেলার বাসিন্দারা নৌপথে ঢাকায় যাতায়াত করেন। পদ্মা সেতু চালুর খবরে জেলার সড়ক পরিবহন মালিকরা ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জে নতুন বাস সার্ভিস চালুর উদ্যোগ নিয়েছেন। তারা আশা করছেন, সেতুর উদ্বোধনের দিন থেকেই নতুন বাস দিয়ে যাত্রীসেবা চালু করতে পারবেন।
নিউজ বিজয/নজরুল