ঢাকা ১২:১২ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিশ্ব পরিবেশ দিবস

দুই বছরের শিশুর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

দুই বছরের একটি শিশুকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন উত্তর কোরিয়ার আদালত। বাবা-মায়ের অপরাধের সাজা খাটতে হচ্ছে তাকে। অভিযোগ উঠেছে, খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বী নাগরিকদের কাছে বাইবেল পাওয়া গেলেই কড়া শাস্তি দিচ্ছে কিম জং উন প্রশাসন।

এমনকি, যাদের কাছে বাইবেল পাওয়া যাচ্ছে, তাদের মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হচ্ছে। সেই সঙ্গে তাদের পরিবারের অন্য সদস্যরা পাচ্ছেন যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের সাজা।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, সম্প্রতি প্রকাশ্যে এসেছে এ ঘটনা। তবে এ ঘটনা ২০০৯ সালের। সে বছর বাইবেল রাখা ও খ্রিস্টান ধর্ম পালনের অপরাধে শিশুটির বাবা-মাকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়। তার পর থেকেই সরকারের আদেশে রাজনৈতিক কারাগারে জীবন কাটাচ্ছে শিশুটি। সে হিসাব অনুযায়ী শিশুটির বর্তমান বয়স ১৫ বছর।

যুক্তরাষ্ট্রের এক অনুসন্ধানে উঠে এসেছে, উত্তর কোরিয়ায় গত কয়েক বছরে ৭০ হাজার খ্রিস্টানকে কারাবাসে পাঠানো হয়েছে। মৃত্যুদণ্ডও পেয়েছেন অনেকে। প্রতিবেদনে আরও দাবি করা হয়, জেলে বন্দিদের ওপর অত্যাচার করা হয়। নানা শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের শিকার হন উত্তর কোরিয়ার বন্দিরা।

২০১০ সাল থেকে উত্তর কোরিয়া শাসন করছেন কিম জং উন। দেশটির কোনো নাগরিকের একনায়ক এ শাসকের কোনো সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করার ক্ষমতা নেই।

নিউজবিজয়২৪/এফএইচএন

👉 নিউজবিজয় ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন ✅

আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার দিন।

NewsBijoy24.Com

নিউজবিজয়২৪.কম একটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল। বস্তুনিষ্ঠ ও তথ্যভিত্তিক সংবাদ প্রকাশের প্রতিশ্রুতি নিয়ে ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাসে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। উৎসর্গ করলাম আমার বাবার নামে, যাঁর স্নেহ-সান্নিধ্যের পরশ পরিবারের সুখ-দু:খ,হাসি-কান্না,ব্যথা-বেদনার মাঝেও আপার শান্তিতে পরিবার তথা সমাজে মাথা উচুঁ করে নিজের অস্তিত্বকে মেলে ধরতে পেরেছি।

দুই বছরের শিশুর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

প্রকাশিত সময় :- ০৩:০৯:০৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৮ মে ২০২৩

দুই বছরের একটি শিশুকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন উত্তর কোরিয়ার আদালত। বাবা-মায়ের অপরাধের সাজা খাটতে হচ্ছে তাকে। অভিযোগ উঠেছে, খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বী নাগরিকদের কাছে বাইবেল পাওয়া গেলেই কড়া শাস্তি দিচ্ছে কিম জং উন প্রশাসন।

এমনকি, যাদের কাছে বাইবেল পাওয়া যাচ্ছে, তাদের মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হচ্ছে। সেই সঙ্গে তাদের পরিবারের অন্য সদস্যরা পাচ্ছেন যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের সাজা।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, সম্প্রতি প্রকাশ্যে এসেছে এ ঘটনা। তবে এ ঘটনা ২০০৯ সালের। সে বছর বাইবেল রাখা ও খ্রিস্টান ধর্ম পালনের অপরাধে শিশুটির বাবা-মাকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়। তার পর থেকেই সরকারের আদেশে রাজনৈতিক কারাগারে জীবন কাটাচ্ছে শিশুটি। সে হিসাব অনুযায়ী শিশুটির বর্তমান বয়স ১৫ বছর।

যুক্তরাষ্ট্রের এক অনুসন্ধানে উঠে এসেছে, উত্তর কোরিয়ায় গত কয়েক বছরে ৭০ হাজার খ্রিস্টানকে কারাবাসে পাঠানো হয়েছে। মৃত্যুদণ্ডও পেয়েছেন অনেকে। প্রতিবেদনে আরও দাবি করা হয়, জেলে বন্দিদের ওপর অত্যাচার করা হয়। নানা শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের শিকার হন উত্তর কোরিয়ার বন্দিরা।

২০১০ সাল থেকে উত্তর কোরিয়া শাসন করছেন কিম জং উন। দেশটির কোনো নাগরিকের একনায়ক এ শাসকের কোনো সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করার ক্ষমতা নেই।

নিউজবিজয়২৪/এফএইচএন