ঢাকা ০৫:৪৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঈদ মুবারক

ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়‌কে যান চলাচলে ধীরগ‌তি

প্রিয়জনদের সঙ্গে ঈদ আনন্দ ভাগাভাগি করতে নাড়ির টানে বাড়ি ফিরছেন মানুষ। তবে, গতকাল সোমবার থেকেই ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে যানজটে ব্যাপক ভোগান্তি পোহাতে হয় যাত্রীদের। মঙ্গলবার (৯ এপ্রিল) দুপুরের দিকেও টাঙ্গাইলে ১২ কিলোমিটার সড়ক জুড়ে যানবাহন চলাচলে ধীরগতি দেখা গেছে।

যানজটের কারণে ঢাকা টাঙ্গাইল মহাড়কের কয়েক জায়গায় যানবাহনের ভিড় দেখা গেছে। এ ছাড়া টাঙ্গাইল অং‌শের মহাসড়‌কের আর কোথায় যানজট বা প‌রিবহনের ধীর‌গ‌তি নেই। চন্দ্রা থেকে এলেঙ্গা চার‌লে‌নে সড়ক হলেও এলেঙ্গা থেকে সেতু পূর্ব পর্যন্ত দুইলে‌নের সড়‌কে প‌রিবহ‌নের চাপ বে‌ড়ে যাওয়ায় যানজ‌টের সৃ‌ষ্টি হয়।

এদি‌কে প্রচণ্ড রোদ ও তীব্র গরমে না‌ভিশ্বাস যাত্রী‌দের। ঈদে বা‌ড়ি ফেরা এসব মানুষজন মহাসড়‌কে যানজটের কার‌ণে তীব্র ভোগা‌ন্তি‌তে প‌ড়ে‌ছেন।

মহাসড়‌কে দা‌য়িত্বরত পু‌লিশ সদস্যরা জানান, গা‌ড়ি কোথাও থে‌মে নেই। গাড়ির চাপ অনেক বেশি থাকায় এমন পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। তবে আশা করছি, শীঘ্রই গাড়ির চাপ কমে যাবে। কাল মহাসড়কে তেমন একটা চাপ থাকবে না। বিশেষত, পোশাক শ্রমিকরা সবাই একযোগে রওনা হওয়ায় যানজট সৃষ্টি হয়েছে।

এলেঙ্গা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (ওসি) মীর মো. সাজেদুর রহমান বলেন, মহাসড়‌কে প‌রিবহ‌নের চাপ বে‌ড়ে‌ছে। গা‌র্মেন্টসহ সকল প্রতিষ্ঠান বন্ধ হ‌য়ে যাওয়ায় একসঙ্গে যানবাহনের চাপ বেড়েছে মহাসড়‌কে। তবে পরিস্থিতি সকালের তুলনায় এখন কিছুটা ভালো।

আরও পড়ুন>>ঈদে ঘরমুখোদের শেষ মুহূর্তে ভেঙে পড়েছে রেলের নিয়ম

নিউজবিজয়২৪/এফএইচএন

👉 নিউজবিজয় ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন ✅

আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার দিন।

NewsBijoy24.Com

নিউজবিজয়২৪.কম একটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল। বস্তুনিষ্ঠ ও তথ্যভিত্তিক সংবাদ প্রকাশের প্রতিশ্রুতি নিয়ে ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাসে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। উৎসর্গ করলাম আমার বাবার নামে, যাঁর স্নেহ-সান্নিধ্যের পরশ পরিবারের সুখ-দু:খ,হাসি-কান্না,ব্যথা-বেদনার মাঝেও আপার শান্তিতে পরিবার তথা সমাজে মাথা উচুঁ করে নিজের অস্তিত্বকে মেলে ধরতে পেরেছি।

কুড়িগ্রামে তিনদিন ব্যাপী শিক্ষকদের ইনহাউজ প্রশিক্ষণ

ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়‌কে যান চলাচলে ধীরগ‌তি

প্রকাশিত সময় :- ০২:৪৭:২২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৯ এপ্রিল ২০২৪

প্রিয়জনদের সঙ্গে ঈদ আনন্দ ভাগাভাগি করতে নাড়ির টানে বাড়ি ফিরছেন মানুষ। তবে, গতকাল সোমবার থেকেই ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে যানজটে ব্যাপক ভোগান্তি পোহাতে হয় যাত্রীদের। মঙ্গলবার (৯ এপ্রিল) দুপুরের দিকেও টাঙ্গাইলে ১২ কিলোমিটার সড়ক জুড়ে যানবাহন চলাচলে ধীরগতি দেখা গেছে।

যানজটের কারণে ঢাকা টাঙ্গাইল মহাড়কের কয়েক জায়গায় যানবাহনের ভিড় দেখা গেছে। এ ছাড়া টাঙ্গাইল অং‌শের মহাসড়‌কের আর কোথায় যানজট বা প‌রিবহনের ধীর‌গ‌তি নেই। চন্দ্রা থেকে এলেঙ্গা চার‌লে‌নে সড়ক হলেও এলেঙ্গা থেকে সেতু পূর্ব পর্যন্ত দুইলে‌নের সড়‌কে প‌রিবহ‌নের চাপ বে‌ড়ে যাওয়ায় যানজ‌টের সৃ‌ষ্টি হয়।

এদি‌কে প্রচণ্ড রোদ ও তীব্র গরমে না‌ভিশ্বাস যাত্রী‌দের। ঈদে বা‌ড়ি ফেরা এসব মানুষজন মহাসড়‌কে যানজটের কার‌ণে তীব্র ভোগা‌ন্তি‌তে প‌ড়ে‌ছেন।

মহাসড়‌কে দা‌য়িত্বরত পু‌লিশ সদস্যরা জানান, গা‌ড়ি কোথাও থে‌মে নেই। গাড়ির চাপ অনেক বেশি থাকায় এমন পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। তবে আশা করছি, শীঘ্রই গাড়ির চাপ কমে যাবে। কাল মহাসড়কে তেমন একটা চাপ থাকবে না। বিশেষত, পোশাক শ্রমিকরা সবাই একযোগে রওনা হওয়ায় যানজট সৃষ্টি হয়েছে।

এলেঙ্গা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (ওসি) মীর মো. সাজেদুর রহমান বলেন, মহাসড়‌কে প‌রিবহ‌নের চাপ বে‌ড়ে‌ছে। গা‌র্মেন্টসহ সকল প্রতিষ্ঠান বন্ধ হ‌য়ে যাওয়ায় একসঙ্গে যানবাহনের চাপ বেড়েছে মহাসড়‌কে। তবে পরিস্থিতি সকালের তুলনায় এখন কিছুটা ভালো।

আরও পড়ুন>>ঈদে ঘরমুখোদের শেষ মুহূর্তে ভেঙে পড়েছে রেলের নিয়ম

নিউজবিজয়২৪/এফএইচএন