ডিসেম্বরে খাদ্য মূল্যস্ফীতি কমে ১০ শতাংশের নিচে » NewsBijoy24 । Online Newspaper of Bangladesh.
ঢাকা ০৭:৪১ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ডিসেম্বরে খাদ্য মূল্যস্ফীতি কমে ১০ শতাংশের নিচে

  • নিউজ বিজয় ডেস্ক :-
  • প্রকাশিত সময় :- ০৮:১৩:০৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ জানুয়ারী ২০২৪
  • ২১২ পড়া হয়েছে। নিউজবিজয় ২৪.কম-১৫ ডিসেম্বরে ৯ বছরে পর্দাপন

দেশের সার্বিক মূল্যস্ফীতির হার কিছুটা কমেছে। বিদায়ী বছরের শেষ মাস অর্থাৎ ডিসেম্বরে তা দাঁড়িয়েছে ৯.৪১ শতাংশে। একই সঙ্গে খাদ্য মূল্যস্ফীতির হার কমে দাঁড়িয়েছে ১০ শতাংশের নিচে।

রোববার (১৪ জানুয়ারি) বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো (বিবিএস) এ তথ্য জানিয়েছে।
বিবিএসের সর্বশেষ তথ্য বলছে, ডিসেম্বরে দেশের সার্বিক মূল্যস্ফীতির হার সামান্য কমে দাঁড়িয়েছে ৯.৪১ শতাংশে, যা নভেম্বরে ছিল ৯.৪৯ শতাংশ এবং অক্টোবরে ছিল ৯.৯৩ শতাংশ।

একই সময়ে দুই ডিজিট থেকে ফের এক ডিজিটে নেমে এসেছে খাদ্য মূল্যস্ফীতির হারও। ডিসেম্বরে দেশের খাদ্য মূল্যস্ফীতির হার ছিল ৯.৫৮ শতাংশ, যা নভেম্বরে ছিল ১০.৭৬ শতাংশ এবং অক্টোবরে ১২.৫৬ শতাংশ।

যদিও এর বিপরীতে বেড়ে গেছে খাদ্যবহির্ভূত মূল্যস্ফীতি, যা এ মাসে দাঁড়িয়েছে ৮.৫২ শতাংশে। গত নভেম্বর ও অক্টোবরে এ হার ছিল যথাক্রমে ৮.১৬ শতাংশ ও ৮.৩০ শতাংশ।

এছাড়া ডিসেম্বরে গ্রামাঞ্চলে সার্বিক মূল্যস্ফীতির হার কমে দাঁড়িয়েছে ৯.৪৮ শতাংশ, যা নভেম্বরে ছিল ৯.৬২ শতাংশ এবং অক্টোবরে ছিল ৯.৯৯ শতাংশ। এছাড়া ডিসেম্বরে খাদ্য মূল্যস্ফীতির হার ছিল ৯.৬৬ শতাংশ, যা নভেম্বর ও অক্টোবরে ছিল যথাক্রমে ১০.৮৬ শতাংশ ও ১২.৫৩ শতাংশ।

তবে গ্রামেও বেড়েছে খাদ্য বহির্ভূত মূল্যস্ফীতি। ডিসেম্বরে এ হার দাঁড়িয়েছে ৮.৪১ শতাংশ, যা নভেম্বর ও অক্টোবরে ছিল যথাক্রমে ৮ শতাংশ ও ৮.০১ শতাংশ।

এদিকে, গেলো ডিসেম্বরে শহরের সার্বিক মূল্যস্ফীতির হার সামান্য কমে দাঁড়িয়েছে ৯.১৫ শতাংশ। এটি নভেম্বরে ছিল ৯.১৬ শতাংশ এবং অক্টোবরে ৯.৭২ শতাংশ। শহরে ডিসেম্বরে খাদ্য মূল্যস্ফীতির হার ছিল ৯.৪৬ শতাংশ। আর এ হার নভেম্বরে ছিল ১০.৫৮ শতাংশ এবং অক্টোবরে ১২.৫৮ শতাংশ। গ্রামের পাশাপাশি শহরেও খাদ্য বহির্ভূত মূল্যস্ফীতির হার বেড়েছে। ডিসেম্বরে তা হয়েছে ৮.৩৯ শতাংশ, যা নভেম্বর ও অক্টোবরে ছিল যথাক্রমে ৮.১৭ শতাংশ ও ৮.৫০ শতাংশ।

নিউজবিজয়২৪/এফএইচএন

নিউজবিজয় ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার দিন।

NewsBijoy24.Com

নিউজবিজয়২৪.কম একটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল। বস্তুনিষ্ঠ ও তথ্যভিত্তিক সংবাদ প্রকাশের প্রতিশ্রুতি নিয়ে ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাসে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। উৎসর্গ করলাম আমার বাবার নামে, যাঁর স্নেহ-সান্নিধ্যের পরশ পরিবারের সুখ-দু:খ,হাসি-কান্না,ব্যথা-বেদনার মাঝেও আপার শান্তিতে পরিবার তথা সমাজে মাথা উচুঁ করে নিজের অস্তিত্বকে মেলে ধরতে পেরেছি।
জনপ্রিয় সংবাদ

রৌমারীতে সংসদ সদস্যকে সংবর্ধনা

Advertisement

ডিসেম্বরে খাদ্য মূল্যস্ফীতি কমে ১০ শতাংশের নিচে

প্রকাশিত সময় :- ০৮:১৩:০৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ জানুয়ারী ২০২৪

দেশের সার্বিক মূল্যস্ফীতির হার কিছুটা কমেছে। বিদায়ী বছরের শেষ মাস অর্থাৎ ডিসেম্বরে তা দাঁড়িয়েছে ৯.৪১ শতাংশে। একই সঙ্গে খাদ্য মূল্যস্ফীতির হার কমে দাঁড়িয়েছে ১০ শতাংশের নিচে।

রোববার (১৪ জানুয়ারি) বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো (বিবিএস) এ তথ্য জানিয়েছে।
বিবিএসের সর্বশেষ তথ্য বলছে, ডিসেম্বরে দেশের সার্বিক মূল্যস্ফীতির হার সামান্য কমে দাঁড়িয়েছে ৯.৪১ শতাংশে, যা নভেম্বরে ছিল ৯.৪৯ শতাংশ এবং অক্টোবরে ছিল ৯.৯৩ শতাংশ।

একই সময়ে দুই ডিজিট থেকে ফের এক ডিজিটে নেমে এসেছে খাদ্য মূল্যস্ফীতির হারও। ডিসেম্বরে দেশের খাদ্য মূল্যস্ফীতির হার ছিল ৯.৫৮ শতাংশ, যা নভেম্বরে ছিল ১০.৭৬ শতাংশ এবং অক্টোবরে ১২.৫৬ শতাংশ।

যদিও এর বিপরীতে বেড়ে গেছে খাদ্যবহির্ভূত মূল্যস্ফীতি, যা এ মাসে দাঁড়িয়েছে ৮.৫২ শতাংশে। গত নভেম্বর ও অক্টোবরে এ হার ছিল যথাক্রমে ৮.১৬ শতাংশ ও ৮.৩০ শতাংশ।

এছাড়া ডিসেম্বরে গ্রামাঞ্চলে সার্বিক মূল্যস্ফীতির হার কমে দাঁড়িয়েছে ৯.৪৮ শতাংশ, যা নভেম্বরে ছিল ৯.৬২ শতাংশ এবং অক্টোবরে ছিল ৯.৯৯ শতাংশ। এছাড়া ডিসেম্বরে খাদ্য মূল্যস্ফীতির হার ছিল ৯.৬৬ শতাংশ, যা নভেম্বর ও অক্টোবরে ছিল যথাক্রমে ১০.৮৬ শতাংশ ও ১২.৫৩ শতাংশ।

তবে গ্রামেও বেড়েছে খাদ্য বহির্ভূত মূল্যস্ফীতি। ডিসেম্বরে এ হার দাঁড়িয়েছে ৮.৪১ শতাংশ, যা নভেম্বর ও অক্টোবরে ছিল যথাক্রমে ৮ শতাংশ ও ৮.০১ শতাংশ।

এদিকে, গেলো ডিসেম্বরে শহরের সার্বিক মূল্যস্ফীতির হার সামান্য কমে দাঁড়িয়েছে ৯.১৫ শতাংশ। এটি নভেম্বরে ছিল ৯.১৬ শতাংশ এবং অক্টোবরে ৯.৭২ শতাংশ। শহরে ডিসেম্বরে খাদ্য মূল্যস্ফীতির হার ছিল ৯.৪৬ শতাংশ। আর এ হার নভেম্বরে ছিল ১০.৫৮ শতাংশ এবং অক্টোবরে ১২.৫৮ শতাংশ। গ্রামের পাশাপাশি শহরেও খাদ্য বহির্ভূত মূল্যস্ফীতির হার বেড়েছে। ডিসেম্বরে তা হয়েছে ৮.৩৯ শতাংশ, যা নভেম্বর ও অক্টোবরে ছিল যথাক্রমে ৮.১৭ শতাংশ ও ৮.৫০ শতাংশ।

নিউজবিজয়২৪/এফএইচএন