ঢাকা ০২:৪৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ছবি তোলার আবদার, ভক্তকে চড় মারলেন অভিনেত্রী রেখা

  • বিনোদন ডেস্ক:-
  • প্রকাশিত সময় :- ০৬:৪৩:২১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • ২৭৬ পড়া হয়েছে। নিউজবিজয় ২৪.কম-১৫ ডিসেম্বরে ৯ বছরে পর্দাপন

বলিউডের অন্যতম জনপ্রিয় এবং সফল অভিনেত্রী রেখা। আবেদনের নিরিখে এখনও ‘চিরসবুজ’ এই অভিনেত্রী। তার ভক্তের তালিকায় আছেন গোটা দেশের দর্শক। সাম্প্রতিক সময়ে তাকে সিনেমার পর্দায় তেমন ভাবে দেখা যায়নি বটে, তবে এই বয়সেও তার রূপে মুগ্ধ অনুরাগীরা। এখনও এক ঝলক দেখতে পেলে তাকে ঘিরে ধরেন তারা। যে কোনও অনুষ্ঠানে তার ছবি তুলতে মুখিয়ে থাকেন চিত্রগ্রাহকেরা।

সম্প্রতি এক অনুষ্ঠানেও তার ব্যতিক্রম হয়নি। চিত্রগ্রাহকদের ছবি তোলার পরে তার সঙ্গে ছবি তোলার আবদার করেছিলেন এক অনুরাগী। ভক্তের বায়না শুনে সেখানেই তাকে চড় মারলেন রেখা!

অনুষ্ঠানে সাবেকি সাজে হাজির হয়েছিলেন রেখা। সঙ্গে তার চেনা রূপটান। ঠোঁটে লাল লিপস্টিক, সিঁথি ভরা সিঁদুর। রেখাকে দেখেই তার ছবি তোলার জন্য ঘিরে ধরেছিলেন চিত্রগ্রাহকেরা। তাদের মধ্যে ছিলেন এক অনুরাগীও। রেখার সঙ্গে একটি নিজস্ব ছবি তুলবেন, এই আর্জি ছিল তার। অভিনেত্রীর কাছাকাছি আসতেই মিলল সপাটে চড়!

সমাজিকমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে এই ভিডিও। যদিও রাগের বশে অনুরাগীকে চড় মারেননি রেখা। ভিডিও থেকে স্পষ্ট, মজার ছলেই ওই কাজ করেছিলেন ‘সিলসিলা’ খ্যাত অভিনেত্রী।

ভিডিওর কমেন্টে অনেকে বলেছেন, ‘গালে রেখার হাত পড়েছে, উনি সাত দিন আর স্নানই করবেন না!’ আরেকজন মন্তব্য করেছেন, ‘তিনি ভাগ্যবান। সে তার (রেখা) স্পর্শ পেয়েছে।’ আরেক ভক্ত রেখাকে বলেছেন ‘চিরকালের কিংবদন্তি’।

অনুষ্ঠানে সিলভার সিল্কের কুর্তা-চুড়িদারের ওপর শাড়ির মতো মোড়ানো সাদা দোপাট্টায় ছিলেন রেখা। এর সঙ্গে ছিল মানানসই সাদা এবং সোনালি হিল, ঐতিহ্যবাহী গহনা, আর মেকআপ।

কয়েক মাস আগে নিজের ব্যক্তিগত সহকারী ফারজানার সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে বিতর্কে জড়িয়েছিলেন রেখা। কানাঘুষো শোনা যায়, ফারজানার সঙ্গেই নাকি দীর্ঘ দিন ধরে ‘সম্পর্কে’ রয়েছেন অভিনেত্রী। তার সঙ্গেই নাকি একত্রে বসবাসও করেন!

কর্মজীবনের শিখরে থাকাকালীন অমিতাভ বচ্চনের সঙ্গে তার প্রেম নিয়ে কম জলঘোলা হয়নি। তবে সেই সব জল্পনায় জল ঢেলে ১৯৯০ সালে ব্যবসায়ী মুকেশ আগরওয়ালকে বিয়ে করেন রেখা। যদিও সেই বিয়ে টেকেনি। মাত্র সাত মাসের মাথায় আত্মহত্যা করেন মুকেশ। তার পর থেকে ‘সিঙ্গেল’ রেখা। সঙ্গী বলতে তার সহকারী ফারজানা।

ছবি তোলার আবদার, ভক্তকে চড় মারলেন অভিনেত্রী রেখা

১৯৬৬ সালে রাঙ্গুলা রত্নম নামে একটি তেলুগু ছবির মাধ্যমে শিশুশিল্পী হিসেবে তার চলচ্চিত্র জীবন শুরু হয়। কিন্তু নায়িকা হিসেবে ১৯৭০ সালে শাওন ভাদো নামে একটি ছবিতে অভিনয়ের মাধ্যমে তিনি বলিউডে যাত্রা শুরু করেন। যদিও প্রথম দিকে তার কিছু ছবি সাফল্য পায় কিন্তু সত্তর এর দশকের মাঝের দিকে রেখা অভিনেত্রী হিসেবে পরিচিতি অর্জন করেন। তিনি প্রায়ই তার সৌন্দর্য নিয়ে আলোচনা করেছেন এবং যখন তিনি প্লাস্টিক সার্জারি সম্পন্ন করেন, তখন ভারতীয় মিডিয়া তাকে যৌন আবেদনের প্রতীক হিসেবে আখ্যায়িত করে।

৪০ বছরের অভিনয় জীবনে রেখা ১৮০টির অধিক চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। রেখা তিনবার ফিল্মফেয়ার পুরস্কার জিতেন, দুইবার শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে ও একবার শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে। ১৯৮১ সালে উমরাহ জান চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন। সূত্র: আনন্দবাজার

নিউজবিজয়/এফএইচএন

👉 নিউজবিজয় ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন ✅

আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার দিন।

NewsBijoy24.Com

নিউজবিজয়২৪.কম একটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল। বস্তুনিষ্ঠ ও তথ্যভিত্তিক সংবাদ প্রকাশের প্রতিশ্রুতি নিয়ে ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাসে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। উৎসর্গ করলাম আমার বাবার নামে, যাঁর স্নেহ-সান্নিধ্যের পরশ পরিবারের সুখ-দু:খ,হাসি-কান্না,ব্যথা-বেদনার মাঝেও আপার শান্তিতে পরিবার তথা সমাজে মাথা উচুঁ করে নিজের অস্তিত্বকে মেলে ধরতে পেরেছি।

ছবি তোলার আবদার, ভক্তকে চড় মারলেন অভিনেত্রী রেখা

প্রকাশিত সময় :- ০৬:৪৩:২১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩

বলিউডের অন্যতম জনপ্রিয় এবং সফল অভিনেত্রী রেখা। আবেদনের নিরিখে এখনও ‘চিরসবুজ’ এই অভিনেত্রী। তার ভক্তের তালিকায় আছেন গোটা দেশের দর্শক। সাম্প্রতিক সময়ে তাকে সিনেমার পর্দায় তেমন ভাবে দেখা যায়নি বটে, তবে এই বয়সেও তার রূপে মুগ্ধ অনুরাগীরা। এখনও এক ঝলক দেখতে পেলে তাকে ঘিরে ধরেন তারা। যে কোনও অনুষ্ঠানে তার ছবি তুলতে মুখিয়ে থাকেন চিত্রগ্রাহকেরা।

সম্প্রতি এক অনুষ্ঠানেও তার ব্যতিক্রম হয়নি। চিত্রগ্রাহকদের ছবি তোলার পরে তার সঙ্গে ছবি তোলার আবদার করেছিলেন এক অনুরাগী। ভক্তের বায়না শুনে সেখানেই তাকে চড় মারলেন রেখা!

অনুষ্ঠানে সাবেকি সাজে হাজির হয়েছিলেন রেখা। সঙ্গে তার চেনা রূপটান। ঠোঁটে লাল লিপস্টিক, সিঁথি ভরা সিঁদুর। রেখাকে দেখেই তার ছবি তোলার জন্য ঘিরে ধরেছিলেন চিত্রগ্রাহকেরা। তাদের মধ্যে ছিলেন এক অনুরাগীও। রেখার সঙ্গে একটি নিজস্ব ছবি তুলবেন, এই আর্জি ছিল তার। অভিনেত্রীর কাছাকাছি আসতেই মিলল সপাটে চড়!

সমাজিকমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে এই ভিডিও। যদিও রাগের বশে অনুরাগীকে চড় মারেননি রেখা। ভিডিও থেকে স্পষ্ট, মজার ছলেই ওই কাজ করেছিলেন ‘সিলসিলা’ খ্যাত অভিনেত্রী।

ভিডিওর কমেন্টে অনেকে বলেছেন, ‘গালে রেখার হাত পড়েছে, উনি সাত দিন আর স্নানই করবেন না!’ আরেকজন মন্তব্য করেছেন, ‘তিনি ভাগ্যবান। সে তার (রেখা) স্পর্শ পেয়েছে।’ আরেক ভক্ত রেখাকে বলেছেন ‘চিরকালের কিংবদন্তি’।

অনুষ্ঠানে সিলভার সিল্কের কুর্তা-চুড়িদারের ওপর শাড়ির মতো মোড়ানো সাদা দোপাট্টায় ছিলেন রেখা। এর সঙ্গে ছিল মানানসই সাদা এবং সোনালি হিল, ঐতিহ্যবাহী গহনা, আর মেকআপ।

কয়েক মাস আগে নিজের ব্যক্তিগত সহকারী ফারজানার সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে বিতর্কে জড়িয়েছিলেন রেখা। কানাঘুষো শোনা যায়, ফারজানার সঙ্গেই নাকি দীর্ঘ দিন ধরে ‘সম্পর্কে’ রয়েছেন অভিনেত্রী। তার সঙ্গেই নাকি একত্রে বসবাসও করেন!

কর্মজীবনের শিখরে থাকাকালীন অমিতাভ বচ্চনের সঙ্গে তার প্রেম নিয়ে কম জলঘোলা হয়নি। তবে সেই সব জল্পনায় জল ঢেলে ১৯৯০ সালে ব্যবসায়ী মুকেশ আগরওয়ালকে বিয়ে করেন রেখা। যদিও সেই বিয়ে টেকেনি। মাত্র সাত মাসের মাথায় আত্মহত্যা করেন মুকেশ। তার পর থেকে ‘সিঙ্গেল’ রেখা। সঙ্গী বলতে তার সহকারী ফারজানা।

ছবি তোলার আবদার, ভক্তকে চড় মারলেন অভিনেত্রী রেখা

১৯৬৬ সালে রাঙ্গুলা রত্নম নামে একটি তেলুগু ছবির মাধ্যমে শিশুশিল্পী হিসেবে তার চলচ্চিত্র জীবন শুরু হয়। কিন্তু নায়িকা হিসেবে ১৯৭০ সালে শাওন ভাদো নামে একটি ছবিতে অভিনয়ের মাধ্যমে তিনি বলিউডে যাত্রা শুরু করেন। যদিও প্রথম দিকে তার কিছু ছবি সাফল্য পায় কিন্তু সত্তর এর দশকের মাঝের দিকে রেখা অভিনেত্রী হিসেবে পরিচিতি অর্জন করেন। তিনি প্রায়ই তার সৌন্দর্য নিয়ে আলোচনা করেছেন এবং যখন তিনি প্লাস্টিক সার্জারি সম্পন্ন করেন, তখন ভারতীয় মিডিয়া তাকে যৌন আবেদনের প্রতীক হিসেবে আখ্যায়িত করে।

৪০ বছরের অভিনয় জীবনে রেখা ১৮০টির অধিক চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। রেখা তিনবার ফিল্মফেয়ার পুরস্কার জিতেন, দুইবার শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে ও একবার শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে। ১৯৮১ সালে উমরাহ জান চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন। সূত্র: আনন্দবাজার

নিউজবিজয়/এফএইচএন