ঢাকা ০৬:২৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ১০ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আবারও গ্রেপ্তারের আশঙ্কা ট্রাম্পের

ক্যাপিটল হিলে দাঙ্গা ও প্রসিডেন্ট নির্বাচনের ফল প্রভাবিত করার চেষ্টার ঘটনায় আবারও গ্রেপ্তার হতে পারেন বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। মঙ্গলবার নিজে সামাজিক মাধ্যম ট্রুথ স্যোশালে এই শঙ্কার কথা জানান। তিনি বলেন, বিশেষ কৌঁসুলি জ্যাক স্মিথের কাছ থেকে রোববার রাতে অবগত হয়েছেন যে, গ্র্যান্ড জুরির তদন্তের টার্গেট আমি।

বিবিসির প্রতিবেদনে জানা যায়, বিশেষ কৌঁসুলির পাঠানো চিঠিতে গ্র্যান্ড জুরির সামনে হাজির হয়ে সাক্ষ্য দেয়ার জন্য মাত্র ৪ দিন সময় দেয়া হয়েছে সাবেক প্রেসিডেন্টকে। এত কম সময়ের এমন সমনের ক্ষেত্রে অধিকাংশ সময় গ্রেপ্তার কিংবা অভিযোগ দাখিল হয়ে থাকে বলে জানান ট্রাম্প।

গত নভেম্বরে ট্রাম্পের আগামী বছরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে লড়ার ঘোষণা দেয়ার পরই অ্যাটর্নি জেনারেল মেরিক গারল্যান্ড বিশেষ কৌঁসুলি জ্যাক স্মিথকে নিয়োগ দেন। সে সময় স্মিথের নেতৃত্বাধীন একটি দলকে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে একাধিক তদন্ত পরিচালনার কাজ দেয়া হয়েছিল। যার মধ্যে ছিল ট্রাম্প হোয়াইট হাউজ ছাড়ার পর বাড়ি থেকে গোপন নথি উদ্ধার, ২০২১ সালের ৬ জানুয়ারি ক্যাপিটল হিলে ভবনে হামলা উস্কে দেয়া এবং ট্রাম্প ও তার উপদেষ্টাদের ২০২০ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ফল উল্টে দেয়ার চেষ্টা।

এদিকে বিশেষ কৌঁসুলি জ্যাক স্মিথ ট্রাম্পের গ্রেপ্তার সম্ভাবনার বিষয়ে কোনও মন্তব্য করেননি। এমনকি স্মিথের কার্যালয় থেকেও এ বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য পাওয়া যায়নি।

এর আগে গত ৫ এপ্রিল সাবেক প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। ম্যানহাটন ডিসট্রিক্ট অ্যাটর্নির অফিসে হাজিরা দিতে গেলে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। তবে গ্রেপ্তার হওয়ার কিছুক্ষণ পরই মুক্তি পান তিনি।

সাবেক পর্নো তারকা স্টর্মি ড্যানিয়েলসকে ঘুষ দেয়ার মামলায় গত ৩০ মার্চ ফৌজদারি অপরাধে অভিযুক্ত হন ট্রাম্প। ওই মামলায়ই তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। ড্যানিয়েলসের অভিযোগ, ২০০৬ সালে তার সঙ্গে ট্রাম্পের যৌন সম্পর্ক গড়ে উঠেছিল। পরে ২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে এ বিষয়ে মুখ না খুলতে মোটা অঙ্কের ঘুষ দেওয়া হয় ড্যানিয়েলসকে। তবে এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন ট্রাম্প।

নিউজবিজয়২৪/এফএইচএন

👉 নিউজবিজয় ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন ✅

আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার দিন।

NewsBijoy24.Com

নিউজবিজয়২৪.কম একটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল। বস্তুনিষ্ঠ ও তথ্যভিত্তিক সংবাদ প্রকাশের প্রতিশ্রুতি নিয়ে ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাসে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। উৎসর্গ করলাম আমার বাবার নামে, যাঁর স্নেহ-সান্নিধ্যের পরশ পরিবারের সুখ-দু:খ,হাসি-কান্না,ব্যথা-বেদনার মাঝেও আপার শান্তিতে পরিবার তথা সমাজে মাথা উচুঁ করে নিজের অস্তিত্বকে মেলে ধরতে পেরেছি।

ধারণা ছিল একটা আঘাত আসবে: প্রধানমন্ত্রী

আবারও গ্রেপ্তারের আশঙ্কা ট্রাম্পের

প্রকাশিত সময় :- ০১:০৫:৩৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৯ জুলাই ২০২৩

ক্যাপিটল হিলে দাঙ্গা ও প্রসিডেন্ট নির্বাচনের ফল প্রভাবিত করার চেষ্টার ঘটনায় আবারও গ্রেপ্তার হতে পারেন বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। মঙ্গলবার নিজে সামাজিক মাধ্যম ট্রুথ স্যোশালে এই শঙ্কার কথা জানান। তিনি বলেন, বিশেষ কৌঁসুলি জ্যাক স্মিথের কাছ থেকে রোববার রাতে অবগত হয়েছেন যে, গ্র্যান্ড জুরির তদন্তের টার্গেট আমি।

বিবিসির প্রতিবেদনে জানা যায়, বিশেষ কৌঁসুলির পাঠানো চিঠিতে গ্র্যান্ড জুরির সামনে হাজির হয়ে সাক্ষ্য দেয়ার জন্য মাত্র ৪ দিন সময় দেয়া হয়েছে সাবেক প্রেসিডেন্টকে। এত কম সময়ের এমন সমনের ক্ষেত্রে অধিকাংশ সময় গ্রেপ্তার কিংবা অভিযোগ দাখিল হয়ে থাকে বলে জানান ট্রাম্প।

গত নভেম্বরে ট্রাম্পের আগামী বছরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে লড়ার ঘোষণা দেয়ার পরই অ্যাটর্নি জেনারেল মেরিক গারল্যান্ড বিশেষ কৌঁসুলি জ্যাক স্মিথকে নিয়োগ দেন। সে সময় স্মিথের নেতৃত্বাধীন একটি দলকে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে একাধিক তদন্ত পরিচালনার কাজ দেয়া হয়েছিল। যার মধ্যে ছিল ট্রাম্প হোয়াইট হাউজ ছাড়ার পর বাড়ি থেকে গোপন নথি উদ্ধার, ২০২১ সালের ৬ জানুয়ারি ক্যাপিটল হিলে ভবনে হামলা উস্কে দেয়া এবং ট্রাম্প ও তার উপদেষ্টাদের ২০২০ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ফল উল্টে দেয়ার চেষ্টা।

এদিকে বিশেষ কৌঁসুলি জ্যাক স্মিথ ট্রাম্পের গ্রেপ্তার সম্ভাবনার বিষয়ে কোনও মন্তব্য করেননি। এমনকি স্মিথের কার্যালয় থেকেও এ বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য পাওয়া যায়নি।

এর আগে গত ৫ এপ্রিল সাবেক প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। ম্যানহাটন ডিসট্রিক্ট অ্যাটর্নির অফিসে হাজিরা দিতে গেলে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। তবে গ্রেপ্তার হওয়ার কিছুক্ষণ পরই মুক্তি পান তিনি।

সাবেক পর্নো তারকা স্টর্মি ড্যানিয়েলসকে ঘুষ দেয়ার মামলায় গত ৩০ মার্চ ফৌজদারি অপরাধে অভিযুক্ত হন ট্রাম্প। ওই মামলায়ই তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। ড্যানিয়েলসের অভিযোগ, ২০০৬ সালে তার সঙ্গে ট্রাম্পের যৌন সম্পর্ক গড়ে উঠেছিল। পরে ২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে এ বিষয়ে মুখ না খুলতে মোটা অঙ্কের ঘুষ দেওয়া হয় ড্যানিয়েলসকে। তবে এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন ট্রাম্প।

নিউজবিজয়২৪/এফএইচএন