ঢাকা ০৩:৪৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঈদ মোবারক

আদিতমারীতে স্ত্রীকে হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন

লালমনিরহাটের আদিতমারীত উপজেলায় স্ত্রীকে হত্যার দায়ে স্বামী নুরুজ্জামানের যাবজ্জীবন কারাদণ্ডসহ পাঁচ হাজার টাকা অর্থদণ্ড, অনাদায়ে আরও এক বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত।

গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে লালমনিরহাট জেলা ও দায়রা জজ মোঃ মিজানুর রহমান এ রায় দেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত আসামির মোঃ নুরুজ্জামান (৫০) ঐ উপজেলার ভেলাবাড়ী ইউনিয়নের শালামারা গ্রামের মোঃ আনছার আলীর ছেলে। রায় ঘোষণার সময় তিনি আদালতে উপস্থিত ছিলেন। পর তাঁকে লালমনিরহাট জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

মামলা ও আদালত সূত্রে জানা যায়, প্রায় ১২ বছর আগে একই গ্রামের সুরুজ আলীর মেয়ে রহিমা বেগমের সহিত বিয়ে হয় নুরুজ্জামানের। তাদের সংসারে একটি ছেলে ও একটি মেয়ে সন্তান আছে। তবে পারিবারিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে নুরজ্জামান ও রহিমার মধ্যে পারিবারিক কলহ লেগেই থাকত।

একপর্যায়ে নুরুজ্জামান রহিমা বেগমকে হত্যা করে একটি জমির পানির নালায় লুকিয়ে রাখেন। ২০১৫ সালের ১২ ডিসেম্বর নালা থেকে রহিমা বেগমের লাশ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনার পরদিন ১৩ ডিসেম্বর রহিমা বেগমের বাবা সুরুজ মিয়া বাদী হয়ে আদিতমারী থানায় হত্যা মামলা করেন।

লালমনিরহাট জেলা ও দায়রা জজ আদালতের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) আকমল হোসেন আহমেদ বলেন, সাক্ষীদের সাক্ষ্য গ্রহণ ও দীর্ঘ শুনানি শেষে গতকাল বিকেলে আদালত নুরুজ্জামানকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ড, অনাদায়ে আরও এক বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন। আদালতের এ রায়ে রাষ্ট্রপক্ষ সন্তোষ প্রকাশ করেছে। তবে আইন অনুযায়ী আসামিপক্ষ রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করার সুযোগ পাবে।

নিউজবিজয়/এফএইচএন

👉 নিউজবিজয় ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন ✅

আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার দিন।

NewsBijoy24.Com

নিউজবিজয়২৪.কম একটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল। বস্তুনিষ্ঠ ও তথ্যভিত্তিক সংবাদ প্রকাশের প্রতিশ্রুতি নিয়ে ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাসে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। উৎসর্গ করলাম আমার বাবার নামে, যাঁর স্নেহ-সান্নিধ্যের পরশ পরিবারের সুখ-দু:খ,হাসি-কান্না,ব্যথা-বেদনার মাঝেও আপার শান্তিতে পরিবার তথা সমাজে মাথা উচুঁ করে নিজের অস্তিত্বকে মেলে ধরতে পেরেছি।

গুলিবিদ্ধ ইউপি সদস্য নান্নুকে মামলায় পলাতক দেখালো বিজিবি

আদিতমারীতে স্ত্রীকে হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন

প্রকাশিত সময় :- ০৫:৫৮:১৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৩ জুন ২০২২

লালমনিরহাটের আদিতমারীত উপজেলায় স্ত্রীকে হত্যার দায়ে স্বামী নুরুজ্জামানের যাবজ্জীবন কারাদণ্ডসহ পাঁচ হাজার টাকা অর্থদণ্ড, অনাদায়ে আরও এক বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত।

গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে লালমনিরহাট জেলা ও দায়রা জজ মোঃ মিজানুর রহমান এ রায় দেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত আসামির মোঃ নুরুজ্জামান (৫০) ঐ উপজেলার ভেলাবাড়ী ইউনিয়নের শালামারা গ্রামের মোঃ আনছার আলীর ছেলে। রায় ঘোষণার সময় তিনি আদালতে উপস্থিত ছিলেন। পর তাঁকে লালমনিরহাট জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

মামলা ও আদালত সূত্রে জানা যায়, প্রায় ১২ বছর আগে একই গ্রামের সুরুজ আলীর মেয়ে রহিমা বেগমের সহিত বিয়ে হয় নুরুজ্জামানের। তাদের সংসারে একটি ছেলে ও একটি মেয়ে সন্তান আছে। তবে পারিবারিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে নুরজ্জামান ও রহিমার মধ্যে পারিবারিক কলহ লেগেই থাকত।

একপর্যায়ে নুরুজ্জামান রহিমা বেগমকে হত্যা করে একটি জমির পানির নালায় লুকিয়ে রাখেন। ২০১৫ সালের ১২ ডিসেম্বর নালা থেকে রহিমা বেগমের লাশ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনার পরদিন ১৩ ডিসেম্বর রহিমা বেগমের বাবা সুরুজ মিয়া বাদী হয়ে আদিতমারী থানায় হত্যা মামলা করেন।

লালমনিরহাট জেলা ও দায়রা জজ আদালতের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) আকমল হোসেন আহমেদ বলেন, সাক্ষীদের সাক্ষ্য গ্রহণ ও দীর্ঘ শুনানি শেষে গতকাল বিকেলে আদালত নুরুজ্জামানকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ড, অনাদায়ে আরও এক বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন। আদালতের এ রায়ে রাষ্ট্রপক্ষ সন্তোষ প্রকাশ করেছে। তবে আইন অনুযায়ী আসামিপক্ষ রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করার সুযোগ পাবে।

নিউজবিজয়/এফএইচএন